চুনারুঘাটের সাতছড়িতে সিলেটী বাইকারদের ‘মিলনমেলা’

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: ‘এক বড় না দুই বড়, বাইকারদের দিল বড়’। এ শ্লোগানে হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে বাইকারদের মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার উপজেলার সাতছড়িতে সিলেটী বাইকারদের এ বিশাল মিলনমেলা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন- ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

সিলেট বাইকিং কমিউনিটি (এসবিসি) উদ্যোগে ও হবিগঞ্জ বাইকিং কমিউনিটির পরিচালনায় এতে উপস্থিত ছিল- আর.টি.আর. রাইডার্স সিলেট, কে.পি.আর রাইডার্স, কোশিয়ারা বাইকিং কমিউনিটি, শ্রীমঙ্গল বাইক রাইডার্স, জুড়ি বাইক রাইডার্স, জৈন্ত রাইডার্স, মৌলভীবাজার বাইকার ক্লাব, চুনারুঘাট বাইক রাইডার্স, ইয়ামাহা রাইডার্স ক্লাব হবিগঞ্জ ও ঢাকা, কুমিল্লার বাইক রাইডার্সসহ অসংখ্য বাইক রাইডার্স।

সকল বাইকারদের একটাই প্রতিপাদ্য বিষয় হলো- ‘বাইক চালানোর সময় সবাই হেলমেট পরিধান করতে হবে এবং সেফটি গার্ড ব্যবহার করতে হবে।’

হবিগঞ্জ বাইক রাইডার্সের পক্ষ থেকে সকল বাইকিং গ্রুপের এডমিনদের এবং সিলেট বাইকিং কমিউনিটির পক্ষ থেকে ব্যারিস্টার সুমনকে ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। কেক কাটা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সকল কার্যক্রম সমাপ্ত হয়।

লাখাই থেকে নিখোঁজ হওয়া কিশোর ঢাকায় উদ্ধার

লাখাই (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের লাখাইয়ে নিখোঁজের দুই বছর পর তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে মো. ওমর শরীফ (১৫) নামে এক কিশোরকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে ঢাকা মেট্রোপলিটনের যাত্রাবাড়ী থানা এলাকা থেকে লাখাই থানা পুলিশ তাকে উদ্ধার করে। উদ্ধার হওয়া ওমর শরীফ উপজেলার বামৈ পশ্চিমহাটি গ্রামের মো. আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে।

পুলিশ জানায়- বিগত দুই বছর আগে ওমর শরীফ নিখোঁজ হয়। বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধায় পায়নি পরিবার। কিন্তু রহস্যজনক কারণে বিষয়টি নিয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে কোন জিডিও করা হয়নি। সম্প্রতি একটি মোবাইল নাম্বার থেকে ওমর শরীফের মা আয়েশা খাতুনের মোবাইলে কল আসতে থাকে। কিন্তু সে কোথায় আছে সে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলে না। একেক সময় সে একেক স্থানের পরিচয় দেয়। বিষয়টি নিয়ে নিখোঁজ ওমর শরীফের পরিবার মৌখিকভাবে লাখাই থানা পুলিশকে অবগত করে। এক পর্যায়ে বিষয়টি লাখাই থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) অজয় চন্দ্র দেব আমলে নিয়ে থানায় জিডি করার পরামর্শ দেন। জিডি করার পর থানার এএসআই (নিঃ) মো. হেমায়েত হোসেনের নেতৃত্বে লাখাই থানা পুলিশের একটি চৌকস দল মোবাইল ফোন কলের সূত্র ধরে তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় ঢাকা মেট্রোপলিটনের যাত্রাবাড়ী থানা এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়। পরে ওই কিশোরকে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ ব্যাপারে লাখাই থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) অজয় চন্দ্র দেব বলেন- ‘মূলত সে নিখোঁজ বা অপহরণ হয়েছে সেটা বলা যাবে যাবে না। ধারণা করা হচ্ছে পরিবারের সাথে অভিমান করে দুই বছর আগে ওই ছেলেটি বাড়ি ছেড়ে চলে যায়। আমরা তথ্য প্রযুক্তির সহায়তা তাকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছি।’

নবীগঞ্জে মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবা গ্রেফতার!

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি:  হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জে ১৩ বছর বয়সি কিশোরী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে বাবাকে আটক করেছে পুলিশ।
বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে বাবা আব্দুস সালামকে (৪০) গ্রেফতার করে। পরে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।
পুলিশ জানায়- নবীগঞ্জ উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের জিয়াপুর গ্রামের সিএনজি চালক মো. আব্দুস সালাম (৪০) দীর্ঘদিন ধরে নিজ মেয়েকে ধর্ষণ করে আসছেন। বিষয়টি কাউকে জানালে খুন করার হুমকিও দেয় সে। এতে ভয় পেয়ে মেয়েটি কাউকে কিছু বলেনি। সম্প্রতি ওই কিশোরী মায়ের কাছে সবকিছু বলে দেয়।
পরে গত ১৭ সেপ্টেম্বর তার স্ত্রী মোছাঃ হাছিনা বেগম (৩২) বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন।

আজমিরীগঞ্জে আগুনে পুড়ল ৩৯টি দোকান

নিজস্ব প্রতিনিধি, হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলার পাহাড়পুর বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৩৯টি দোকান পুড়ে ভস্মীভূত হয়েছে। এতে দোকানগুলোর যাবতীয় জিনিসপত্র পুড়ে প্রায় ২০ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার পাহাড়পুর বাজারের ব্যবসায়ী বিষ্ণুপদ দাসের মালিকাধীন একটি জালের দোকান থেকে এই আগুনের সূত্রপাত হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পাহাড়পুর বাজারের ব্যবসায়ী বিষ্ণুপদ দাসের মালিকাধীন দোকানটি বন্ধ থাকায় কেউই অগ্নিকান্ডের বিষয়টি বুঝতে পারেননি। আগুন দ্রুত আশপাশের দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। এই এলাকায় জাল ও কাপড়ের দোকান বেশি হওয়ায় মুহূর্তেই আগুন ভয়াবহ রূপ নেয়। স্থানীয় লোকজন পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করেন। কিন্তু আগুনের তীব্রতা বেশি হওয়ায় কেউ কাছে যেতে পারেননি।

আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় কোনো ফায়ার সার্ভিস স্টেশন না থাকায় নবীগঞ্জ ও বানিয়াচং উপজেলার ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে খবর দেয়া হয়। দুর্গম হাওর এলাকার পাহাড়পুর বাজারে প্রায় ৪ ঘণ্টায়ও পৌঁছাতে পারেনি ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি। এ অবস্থায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করেন স্থানীয় লোকজন ও ব্যবসায়ীরা। ছোট পাওয়ার পাম্প মেশিন লাগিয়ে তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা শুরু করেন। এর কিছু সময় পর নবীগঞ্জ থেকে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছে। রাত ৮টার দিকে ফায়ার সার্ভিস আগুন নেভাতে সক্ষম হয়। আগুন নেভানো সম্ভব হলেও নিঃস্ব হয়ে যান ৩৯টি দোকানের ব্যবসায়ী। দোকান থেকে তারা কিছুই বের করতে পারেননি।

পাহাড়পুর বাজারে অগ্নিকান্ডে পুড়ে যাওয়া দোকানগুলোর মধ্যে রয়েছে- গোপাল দাসের জালের দোকান, শিবু দাসের ঢেউ টিনের দোকান, জগদীশ বৈষ্ণবের কাপড়ের দোকান, মনু দাসের চালের দোকান, সুবল দাসের কাপড়ের দোকান, সুকুমার দাসের কাপড়ের দোকান, বিধান দাসের কাপড়ের দোকান, বিন্দু চন্দ্র দাসের কাপড়ের দোকান, সত্যেন্দ্র দাসের মুদি দোকান, ব্রজেন্দ্র দাসের অ্যালুমিনিয়ামের দোকান, বিশ্ব দাসের মাতৃভান্ডার, হরিদাসের জনতা স্টোর, বীরেন্দ্র দাসের কারেন্ট জালের দোকান, রাতুল তালুকদারের দোকান, পৃথিশ বৈষ্ণবের মুদি দোকান, রণ বৈষ্ণবের কাপড়ের দোকান, জয়হরি দাসের কাপড়ের দোকান, কবিন্দ্র দাসের কাপড় ও জালের দোকান।

এদিকে অগ্নিকান্ডের খবর পেয়েই আজমিরীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) উত্তম কুমার দাস এবং আজমিরীগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত আবু হানিফ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) উত্তম কুমার দাস জানান, অগ্নিকান্ডে ৩৯টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে গেছে। এতে প্রায় ২০ কোটি টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

প্রেমের টানে ভারতীয় তরুণী সুনামগঞ্জে!

নিজস্ব প্রতিনিধি: প্রেমের টানে কাঁটাতারের বেঁড়া অতিক্রম করে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে এসেছেন ভারতীয় তরুণী। তিনি ভারতের আসাম প্রদেশের কামরুপ জেলার চাংসারি থানার টাপারপাথার গ্রামের মুগুর আলীর মেয়ে মঞ্জুরা বেগম (২০)।

জানা যায়, ৫ বছর আগে কথিত মামলার আসামি আব্দুস সাত্তার (২৭) বাংলাদেশ থেকে পালিয়ে ভারতের আসামে পাড়ি জমান। তিনি দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের উত্তর কলাউড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে।

ভারতে যাওয়ার পর সাত্তারের সঙ্গে পরিচয় হয় ভারতীয় তরুণী মঞ্জুরা বেগমের। গড়ে উঠে প্রেমের সম্পর্ক। কিছুদিন পর সাত্তার দেশে ফিরে এলে মোবাইল, ইমো ও ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে চলে তাদের প্রেমর সম্পর্ক। দীর্ঘ ৫ বছর পর প্রেমের টানে মঞ্জুরা বেগম ছুটে এসেছেন বাংলাদেশে।

স্থানীয়রা জানান, আব্দুস সাত্তার ৫ বছর আগে তার এক বন্ধুর প্রেমসংক্রান্ত মামলায় আসামি হন। ওই মামলায় তার বন্ধু জেল খাটেন আর সাত্তার পালিয়ে যান ভারতে। পরবর্তীতে সাত্তার দেশে এসে বাহরাইনে পাড়ি জমান।

ওই সময়ও দুইজনের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক অব্যাহত থাকে। সম্প্রতি মঞ্জুরা বেগমের বিয়ের প্রস্তাব আসে বিভিন্ন জায়গা থেকে। মঞ্জুরা বিষয়টি সাত্তারকে জানালে সাত্তার বাংলাদেশে তার বাড়ির ঠিকানা জানিয়ে দেন। ওই ঠিকানা অনুযায়ী গত মঙ্গলবার বাংলাদেশ সীমান্তে চলে আসে ভারতীয় তরুণী মঞ্জুরা বেগম।

সাত্তারের ছোটভাই ইমরান সেখান থেকে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসেন। পরে মঞ্জুরা বেগমের সম্মতিতে মোবাইল ফোনে বাহরাইনে অবস্থানরত সাত্তারের সঙ্গে বিয়ে সম্পন্ন হয় কিন্তু কাঁটাতারের সীমানা বাধা হয়ে দাঁড়ায় তাদের জীবনে।

বিনা পাসপোর্টে সীমান্ত পাড়ি দেয়ার দায়ে বুধবার খবর পেয়ে বিজিবি আটক করে মঞ্জুরা বেগমকে। বিজিবি মঞ্জুরার বিরুদ্ধে পাসপোর্ট ছাড়া বিনা অনুমতিতে বাংলাদেশে প্রবেশ করার কারণে মামলা দিয়ে বুধবার রাতেই দোয়ারাবাজার থানায় তাকে হস্তান্তর করে।

দোয়ারাবাজার থানার ওসি মোহাম্মদ নাজির আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিজিবি একটি মামলা দায়ের করেছে। ওই মামলার আসামি মঞ্জুরাকে বৃহস্পতিবার কোর্টে সোপর্দ করা হয়েছে।

চুনারুঘাটে মাদক নির্মূলে কোরআন নিয়ে শপথ করানো সেই ওসি প্রত্যাহার

আবুল কালাম আজাদ:
মাদক নির্মূলে কোরআন নিয়ে শপথ করানো হবিগঞ্জের চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হককে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে হবিগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা জানান, পুলিশ হেড কোয়ার্টারের নির্দেশে ওসি শেখ নাজমুল হককে মঙ্গলবার রাতে প্রত্যাহার করা হয়েছে। তবে ঠিক কী কারণে তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে এ বিষয়ে কোনো কিছু জানাননি পুলিশ সুপার।

একটি বিশ্বস্ত সূত্র জানায়, ওসি শেখ নাজমুল হক আজমিরীগঞ্জ থানায় দায়িত্বকালীন একটি মামলা সংক্রান্ত ঘটনা নিয়েই তাকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে। এছাড়াও চুনারুঘাটে দায়িত্বকালীন থাকা সময়ে তার বিরুদ্ধে নানান অভিযোগ উঠে। এক মাস পূর্বে তিনি চুনারুঘাট থানাকে মাদকমুক্ত করতে পুলিশের সব অফিসার ও কনস্টেবলদের পবিত্র কোরআন নিয়ে শপথ করান। এ নিয়ে চুনারুঘাটে আলোচনার ঝড় উঠে। তবে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চুনারুঘাটবাসী মাদকমুক্ত হবে এ আশায় তাকে অভিনন্দনও জানায়।

কিন্তু গত এক মাসে চুনারুঘাটের মাদকসেবী ও চুনোপুঁটিদের গ্রেফতার করা হলেও রাঘববোয়াল ও মাদকের গডফাদারদের গ্রেফতার করা যায়নি। ফলে সীমান্তে মাদক পাচার কমেনি। এর বাইরে তার আমলে চুনারুঘাটে সামাজিক অপরাধ, মাদক চোরাচালান ও খুনের মতো ঘটনা বেড়ে গিয়েছিল।

অভিযোগ উঠেছে, তিনি প্রকাশে মাদকের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করলেও ভেতরে ভেতর এলাকার চোরাকারবারি ও কতিপয় মাদক ও চোরাচালানে পৃষ্ঠপোষক জনপ্রতিনিধির সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তুলেন।

সবচেয়ে বেশি আলোচিত ছিল সম্প্রতি জন্মদিন পালন ও ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওসি শেখ নাজমুল হকের নানান কর্মকাণ্ড।

নবীগঞ্জে পর্নোগ্রাফি মামলায় কৃষকলীগ আহ্বায়ক গ্রেফতার

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে পর্নোগ্রাফি মামলায় পলাতক আসামী উপজেলা কৃষকলীগের আহ্বায়ক শেখ শাহানুর আলম ছানুকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গত বুধবার সন্ধ্যায় নবীগঞ্জ শহরতলীর বাংলা টাউন এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ইতিপূর্বে একই মামলায় পলাতক আসামী হিসেবে তার ছোট ভাই মোঃ নাজমুল আলমকে (৩০) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তারা পৌর এলাকার জয়নগর গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ জানায়-সিলেট কোতোয়ালী থানায় ফরিদা আক্তার নামের জনৈকা এক মহিলা পর্নোগ্রাফি আইনের জিআর ৬২০/১৯ নং  মামলায় বিজ্ঞ আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরওয়ানা জারী করেন। এরই প্রেক্ষিতে উপজেলা কৃষকলীগের আহ্বায়ক শেখ শাহানুর আলম ছানু ও তার সহোদর নাজমুল আলমকে পর্যায়ক্রমে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত বুধবার রাতে নবীগঞ্জ থানার এস আই রুহুল আমীন, এএসআই আক্তার হোসেনসহ একদল পুলিশ  তাকে নবীগঞ্জ শহরের বাংলা টাউন এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমান।

উল্লেখ্য, তিনি ইতিপূর্বেও বিভিন্ন কর্মকান্ডে সমালোচিত হন। বৃহস্পতিবার দুপুরে তাকে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

হাটহাজারী মাদ্রাসা বন্ধ ঘোষণা

করাঙ্গীনিউজ: চট্টগ্রামের মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসা বন্ধের ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ দেয়া হয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সহকারী সচিব সৈয়দ আসগর আলী স্বাক্ষরিত ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, গত ২৪ আগস্ট কওমি মাদ্রাসাসমূহের কিতাব বিভাগের কার্যক্রম শুরু ও পরীক্ষা গ্রহণের জন্য কতিপয় শর্তসাপেক্ষে অনুমতি প্রদান করা হয়।

কিন্তু আরোপিত শর্তসমূহ যথাযথভাবে প্রতিপালিত না হওয়ায় চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলার আল জামিয়াতুল আহলিয়া দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসাটি পুনরাদেশ না দেয়া পর্যন্ত নির্দেশক্রমে বন্ধ করা হলো।

প্রসঙ্গত, বিভিন্ন দাবিতে বুধবার থেকে হাটহাজারী মাদ্রাসায় বিক্ষোভ করছে ছাত্ররা।

এ সময় মাদ্রাসার পরিচালক ও হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা আহমদ শফীসহ বিভিন্ন শিক্ষকের রুমে ভাঙচুর চালিয়েছে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

এর আগে বুধবার রাতে ছাত্রদের আন্দোলনের মুখে হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে প্রতিষ্ঠানটির সহকারী শিক্ষা সচিব মাওলানা আনাস মাদানীকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া বিভিন্ন ছবি ও ভিডিওতে দেখা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল থেকে আবারও লাঠি হাতে পুরো মাদ্রাসার নিয়ন্ত্রণ নেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

মাদ্রাসার সব গেট তালাবদ্ধ করে রাখার পাশাপাশি সহকারী পরিচালক মাওলানা শেখ আহমদ, মুফতি জসিম ও মাওলানা ওমরের রুমে ভাঙচুর চালানো হয়।

হাটহাজারী মাদ্রাসার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে দেয়া এক ভিডিওতে মাদ্রাসার পরিচালক ও হেফাজত আমির আল্লামা আহমদ শফীর কক্ষেও ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ করা হয়েছে।

শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনীর বিপুল পরিমাণ সদস্য মাদ্রাসার মূল ফটকের সামনে অবস্থান নিয়েছেন। অন্যদিকে মাদ্রাসার ভেতরে শিক্ষার্থীরাও তাদের আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে।

চুনারুঘাটে পেঁয়াজের দাম বেশি নেয়ায় ৩২ হাজার টাকা জরিমানা

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রি ও মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ৫ ব্যবসায়ীকে ৩২ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন উপজেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এ জরিমানা করা হয়।

চুনারুঘাট পৌরসভা শহরের বাজারে পেঁয়াজের অস্বাভাবিকভাবে মূল্য বৃদ্ধি করা এবং মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করায় ৫টি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে মোট ৩২ হাজার টাকা অর্থদণ্ড করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিলটন চন্দ্র পাল। সার্বিক সহযোগিতায় ছিল চুনারুঘাট থানা পুলিশের একটি টিম।

চুনারুঘাট উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিলটন চন্দ্র পাল বলেন, কোনো অবস্থাতেই পেঁয়াজের বাজার অস্থির করতে দেয়া হবে না। বাজার স্থিতিশীল রাখতে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। তিনি সব ব্যবসায়ীকে পণ্যের অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধি না করতে এবং মূল্য তালিকা প্রদর্শন করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

হঠাৎ করে ভারত থেকে বাংলাদেশে পেঁয়াজ আসা বন্ধ হওয়ায় পেঁয়াজের বাজারে অস্থিতিশীল অবস্থার সৃষ্টি হয়।

নবীগঞ্জে বাইক চাপায় বৃদ্ধের মৃত্যু

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ দ্রুতগামী মোটরসাইকেল চাপায় মো: আমির উদ্দিন (৫৫) নামের এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে পৌর শহরের ওসমানী রোডস্থ মদিনা রড সিমেন্টের দোকানের সামনে এই সড়ক দুর্ঘটনা ঘটে।

সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হলেন করগাঁও গ্রামের মৃত হানিফ উল্লাহ পুত্র।

স্থানীয়রা জানান, নিহত ব্যক্তি রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন। হঠাৎ করে পিছনের দিকে এসে মোটরসাইকেলটি চাপ দেয়। চাপ দেওয়ার পর স্থানীয়রা এসে উদ্ধার করে নবীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের পারিবারের অভিযোগ, এটা কোন সড়ক দুর্ঘটনা নয়। এটা একটা পরিকল্পিত হত্যা। এই দুর্ঘটনায় মামলার দায়ের প্রস্তুতি চলছে।

দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে নবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আজিজুর রহমান জানান, লাশটি হবিগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এখনো কোন মামলা দায়ের করা হয় নাই। মামলা দায়ের করা হলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

৪ অক্টোবর থেকে সরাসরি সিলেট-লন্ডন ফ্লাইট

নিজস্ব প্রতিনিধি: আগামী ৪ অক্টোবর থেকে সিলেট থেকে লন্ডনে সরাসরি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট স্বাভাবিক হবে।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, বেবিচক ও ইউকের ডিপার্টমেন্ট অব ট্রান্সপোর্টের (ডিএফিটি) ভার্চুয়াল সভায় এ সংক্রান্ত আলোচনা হয়েছে।

বেবিচক চেয়ারম্যান আরো বলেন, সভায় আগামী ৪ অক্টোবর থেকে সিলেট থেকে লন্ডন রুটে সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনার সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। ইউকে ডিএফটি বলেছে, তারা উদ্যোগ নেবে। ফের ডিএফটি টিম সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পরিদর্শন করবে বলেও জানান তিনি।

চুনারুঘাটে ভেজাল কীটনাশক বিক্রির দায়ে অভিযান

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার ৪নং পাইকপাড়া ইউনিয়নে অবৈধভাবে ভেজাল কীটনাশক বিক্রি প্রতিরোধে অভিযান চালিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নির্দেশে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জালাল উদ্দীন সরকার ও সহযোগী টিম এই অভিযান পরিচালনা করেন।

অভিযানে লাইসেন্স ছাড়া মুদি দোকানে অবৈধভাবে কীটনাশক বিক্রির দায়ে গণেশপুর বাজারে ও পাইকপাড়া বাজারের আলাই মিয়ার দোকান থেকে প্রায় ১০ বস্তা সার, ১৮ কেজি ম্যাগনেশিয়াম ও ৪ কেজি বালাইনাশক জব্দ করা হয়। এ সময় উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা এই ভেজাল ও মেয়াদোত্তীর্ণ কীটনাশক বিক্রয়কারী ব্যবসায়িদেরকে আগামী পাঁচ কার্য দিবসের মধ্যে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে কারণ দর্শানোর নির্দেশ প্রদান করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের কর্মকর্তা জানান- উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সহধর্মিণী করোনা আক্রান্ত হওয়ায় তিনিও কোয়ান্টাইনে আছেন। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এক সাথে অফিস ও অভিযান পরিচালনা করছেন। তাই এই অবৈধভাবে ব্যবসা পরিচালনাকারীদেরকে উপজেলা কার্যালয়ে ডাকা হয়েছে।

এ ধরণের অপরাধ ও অবৈধ কার্যক্রমের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জালাল উদ্দীন সরকার।

 

নবীগঞ্জে আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ)প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) নবীগঞ্জ উপজেলার মাসিক আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় নবীগঞ্জ উপজেলাকে মাদকমুক্ত করতে যথাযথ প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহন,ভূয়া ডাক্তার বিরুদ্ধে আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহন,নবীগঞ্জ শহরের নতুন বাজারে বাস থামিলে জেল জরিমানা,বাজারে সকাল ৮ টা থেকে রাত ৯ টার পূর্বে কোন দরনের মালবাহি ট্রাক লোড আনলোড,নসিম করিমন যানবাহন চলাচল বন্ধে জোরদার ব্যবস্থা গ্রহন, অপ্রাপ্ত বয়স্ক ড্রাইভার গাড়ী চালানো আইনত দন্ডনীয় অপরাধ, নবীগঞ্জ বাজারে কোন ভ্রাম্যমান দোকানপাট বসানো নিষেধ, সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য জনগনকে সচেতন করা, উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসের বাহিরের সীমানায় বহিরাগত কর্তৃক সংগঠিত বিভিন্ন ধরনের অপরাধমুলক কর্মকান্ডসহ অন্যান্য বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়।

সভায় সর্বসম্মতিকক্রমে এ সিদ্ধান্ত গুলো গৃহিত হয়।

সকালে উপজেলা সভাকক্ষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন নবীগঞ্জ বাহুবলের সংসদ সদস্য শাহনওয়াজ মিলাদ গাজী।

বিশেষ অতিথি নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম।

বক্তব্য রাখেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি সুমাইয়া মমিন,মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার নূর উদ্দিন (বীর প্রতিক),স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুম সামাদ, নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) উত্তম কুমার দাশ,ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন অফিসার শাহিন আহমেদ,আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুস্তাক আহমেদ মিলু,নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোঃ আলমগীর মিয়া, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নুসরাত ফেরদৌস, আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা আব্দুল আউয়াল, ইউপি চেয়ারম্যান ইজাজুর রহমান, আশিক মিয়া,আবু সাঈদ এওলা মিয়া,আবু সিদ্দিক,আলী আহমেদ মুসা,আব্দুল মুহিত চৌধুরী,জাবেদুল আলম চৌধুরী সাজু,বজলুর রশিদ,মহিবুর রহমান হারুন,সত্যজিৎ দাশ,মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সইফা রহমান কাকলী,ইসলামী ফাউন্ডেশনের সুপার ভাইজার মোঃ সুলেমান প্রমুখ।

নবীগঞ্জে চোলাই মদ পরিবহনের দায়ে ২ ব্যক্তির জেল-জরিমানা

জাবেদ ইকবাল তালুকদার, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) : হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জে অবৈধ চোলাই মদ পরিবহনের দায়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ অনুযায়ী ২ ব্যক্তিকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে কারাদন্ড ও অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে।

গত ১২ সেপ্টেম্বর (শনিবার) রাতে নবীগঞ্জ বাজার সংলগ্ন এলাকায় অবৈধ চোলাই মদ পরিবহনের দায়ে কুর্ষা গ্রামের সুধাংশু’র পুত্র ৪২ বছর বয়সী পলাশ রঞ্জন দেব ও কুরগাঁও গ্রামের মোঃ এলাইছ মিয়ার পুত্র ২০ বছর বয়সী তুহিন আহমেদকে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১৮ অনুযায়ী ১০০০ টাকা অর্থদন্ড প্রধান করা হয়েছে। এবং ২ জনকে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মহি উদ্দিন।

প্রসিকিউশন এবং সার্বিক আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন নবীগঞ্জ থানার একদল পুলিশ।

হবিগঞ্জে করোনায় একদিনে সুস্থ ১২ জন

করাঙ্গীনিউজ: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে থেকে সিলেট বিভাগের চার জেলায় ১০৭ জন সুস্থ হয়েছে। নতুন সুস্থদের মধ্যে সিলেট জেলার ৮১ জন, সুনামগঞ্জে ৮ জন, হবিগঞ্জে ১২ এবং মৌলভীবাজারের ৬ জন রয়েছেন।

গত ২৭ এপ্রিল প্রথম রোগী সুস্থ হওয়ার পর রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত সিলেট বিভাগে সুস্থ রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৯৮৩ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলার ৪৬৭৫ হাজার জন, সুনামগঞ্জে ১ হাজার ৮৯৯ জন, হবিগঞ্জে ১১১৮ জন এবং মৌলভীবাজারের ১২৯১ জন সুস্থ হয়েছেন।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কেউ মারা যাননি। তবে রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২০৩ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলার ১৪৭ জন, সুনামগঞ্জে ২২ জন, হবিগঞ্জে ১৪ জন এবং মৌলভীবাজারের ২০ জন।

রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) সিলেট বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য)’র কার্যালয়ের কোভিড-১৯ কোয়ারেন্টিন ও আইসোলেশনের দৈনিক প্রতিবেদন এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, সিলেট বিভাগে হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এরমধ্যে সিলেট জেলার ৩২ জন এবং সুনামগঞ্জে ৮ জন।

এ নিয়ে সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ হাজার ৮৮৯ জন। এরমধ্যে সিলেট জেলায় ৬ হাজার ৩৮৫ জন, সুনামগঞ্জে ২ হাজার ২২২, হবিগঞ্জে ১ হাজার ৬৫৮ এবং মৌলভীবাজারে ১ হাজার ৬২৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

আর করোনাভাইরাসের উপসর্গ ও করোনায় আক্রান্ত হয়ে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১ হাজার ৫১৫ জন। এরমধ্যে ১৩৮ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আর বাকিরা উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

অন্যদিকে গত ১০ মার্চ থেকে রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত সিলেট বিভাগে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে ১৮ হাজার ৪৯২ জনকে। এর মধ্যে কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে ১৭ হাজার ৬০৬ জনকে। বর্তমানে সিলেট বিভাগে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৮৮৬ জন।