Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  হবিগঞ্জে সহস্রাধিক লোকের হাতে খাবার তুলে দিলেন আবু জাহির #  নবীগঞ্জে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মাক্স বিতরন #  আজমিরীগঞ্জে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর সমন্বয়ে অভিযান #  হবিগঞ্জে পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রীর মৃত্যু #  বানিয়াচংয়ে প্রশাসনের ত্রাণ বিতরণ #  মাধবপুরে সায়হাম গ্রুপের সৌজন্যে মার্কস বিতরণ #  করোনা ভাইরাসের মাঝেও ভিক্ষা করছেন হবিগঞ্জের মীর চান #  মাধবপুরে করোনা ভাইরাস রোধে সেনাবাহিনীর প্রচারাভিযান #  ২৪ ঘণ্টায় নতুন কোনও করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি #  শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু হলো সংসদ টেলিভিশনে #  মাধবপুরে পুলিশের বাড়িতে ডাকাতি #  নবীগঞ্জে বাড়ি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী বিতরণ #  আজমিরীগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে টেটাবিদ্ধসহ আহত ১০ #  শায়েস্তাগঞ্জে ইয়াবাসহ আটক ৩ #  চুনারুঘাটে করোনার রোগী বহনে প্রস্তুত ব্যারিস্টার সুমনের গাড়ি

কোম্পানীগঞ্জে করোনাভাইরাস সংক্রামণ ঠেকাতে সেনা টহল

নিজস্ব প্রতিনিধি, সিলেট: প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে এবং মানুষকে সচেতন করতে কোম্পানীগঞ্জ প্রশাসনের সহযোগিতায় টহল শুরু করেছে সেনাবাহিনী ও পুলিশ।

বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে বিকাল পর্যন্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) নেতৃত্বে পুলিশ ও সেনাবা‌হিনীর সদস্যরা উপজেলার থানা সদর, লাছুখাল, টুকের বাজার, বউ বাজার, পাড়ুয়া বাজার সহ বিভিন্ন স্থানে টহল দি‌য়েছেন।

এ সময় তারা বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় গিয়ে অযথা রাস্তায় অবস্থান না নিতে জনগণের প্রতি আহ্বান জানান। ভিড় এড়িয়ে বাসায় ফিরে যেতে বলেন। প্রথম পর্যায়ে অনুরোধ করলেও পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন সেনা সদস্যরা।

জানা যায়, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা, বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বাধ্য করা, কোথাও যেন জনসমাগম না হয়, কেউ যাতে খাদ্য মজুত করে কৃত্রিম সঙ্কট তৈরি করতে না পারে, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম যেন কেউ বাড়াতে না পারে ও সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়ার ক্ষেত্রে প্রশাসনকে সহায়তা করতে সেনা সদস্যদের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এদিকে সেনা ও পুলিশ বাহিনীর টহলের পর থেকে পুরো কোম্পানীগঞ্জজুড়ে অঘোষিত লকডাউন অবস্থা বিরাজ করছে। কাঁচাবাজার, মুদি দোকান, ফার্মেসি ও হাসপাতাল ছাড়া অন্যান্য সব ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। দুপুর থেকেই উপজেলার প্রতিটি বাজার অনেকটা মানবশূন্য ছিল।

অন্যদিকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও মোকাবেলায় এবং এ সংক্রান্ত জরুরি তথ্য আদান প্রদানের জন্য একটি কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে। সার্বক্ষণিক (২৪/৭) জরুরি সেবা দিতে চালু রাখা হয়েছে ০৮২২৫- ৫৬০০১ ও ০১৮৪১৪৬১২২৮ এই ২টি নাম্বার।

ইউএনও সুমন আর্চায্য জানান, উপজেলার কোথাও যাতে বেশি লোক জড়ো না হয় এবং জরুরি প্রয়োজনে বের হওয়া লোকজন যাতে নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনে চলাফেরা করে- সেটা নিশ্চিত করছে সেনাবাহিনী ও পুলিশ। এছাড়া সব প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতেও সেনাবাহিনীর মাধ্যমে কাজ করা হচ্ছে।