• Youtube
  • English Version
  • শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০১:৪৯ অপরাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৫ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

মৃত্যুর পথযাত্রী শিশু নিহাদ বাঁচতে চায়

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: শুক্রবার, ১০ নভেম্বর, ২০২৩

এফ আর হারিছ, বাহুবল থেকেঃ বাহুবলে চিকিৎসা অভাবে মৃত্যুর পথযাত্রী শিশু নিহাদ বাঁচতে চায়। নিহাদ ইসলাম, বয়স মাত্র ১০ মাস। কখনো উঠান জুড়ে হামাগুঁড়ি দিয়ে এটা সেটা ধরছে, কখনো বা বুকে ভর দিয়ে একটু-আধটু উঠে দাড়ানোর চেষ্টা করছে। কখনো মলিন মুখে চুপচাপ, আর কখনো মুখজুড়ে তারা নজরকাড়া হাসি। কিন্তু সন্তানের এমন হাসিমাখা মুখও বাবা-মায়ের মুখে হাসি ফোটাতে পারছে না। ছেলেকে হারানোর অজানা শঙ্কায় বাবা-মাসহ স্বজনদের মুখের হাসি হারিয়ে গেছে।

জানা যায়, বাহুবল উপজেলার পুটিজুরী ইউনিয়নের মধ্য ভবানীপুর গ্রামের দিনমজুর আজাদ মিয়ার সংসারে সর্ব কনিষ্ঠ শিশুপুত্র নিহাদ। ৩ সন্তানের মধ্যে ছোট শিশুপুত্রটি ছেলে হওয়ায় পুরো পরিবারজুড়ে বইছিল খুশির জোয়ার। দিনমজুরের কাজ করে ও পাহাড় থেকে জ্বালানী কাঠ সংগ্রহ করে তা বাজারে বিক্রি করে আজাদ মিয়া সংসার চালালেও সুখের অভাব ছিল না তাদের। কিন্তু সে সুখের জোয়ারে একদিন নেমে এলো ভাটার টান। বাচ্চা জন্মের ২ মাস পর হঠাৎ তারা জানলেন তার আদরের সন্তানের হার্ট চিদ্র হয়ে গেছে। দীর্ঘদিন সিলেট ও হবিগঞ্জে তার চিকিৎসা করেও কোনো রকম সূফল পাচ্ছেন না।

সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলছেন, কমপক্ষে ঢাকা নিয়ে তার শিশুপুত্র নিহাদের হার্টের অপারেশন না করালে তার সন্তানকে বাঁচানো যাবেনা। কিন্তু তাদের পক্ষে ঢাকাতো দূরের কথা, টাকার অভাবে সিলেটে নিয়েই চিকিৎসা করানোটা দুস্কর।

শিশুটির বাবা আজাদ মিয়া কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন, দুই পুত্র ও এক মেয়ে নিয়ে অভাবের মাঝেও সুখেই ছিলাম। কিন্তু হঠাৎ কি ঝড় এলো আমাদের জীবনে। চোখের সামনে ধুঁকে ধুঁকে আমার ছেলেটা এভাবে মরে যাবে এটা ভাবলেও বুকটা কেঁপে ওঠে। সন্তানকে চিকিৎসা করাতে স্থানীয় একাধিক জনপ্রতিনিধিদের কাছে গেলেও তাদের কাছ থেকে কোনো রকম আশ্বাস না পেয়ে পাগলপ্রায় হয়ে পড়েছেন। তিনি বলেন, আমার বুকের মানিক যেন অকালে হারিয়ে না যায়, সে জন্য দয়া করে আপনারা একটা কিছু করেন। মানুষ তো চা-পান খেয়েও কত টাকা নষ্ট করে। সে টাকাটা দিলেও আমার লক্ষ্মীসোনাটা বেঁচে যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ