1. nafiz.hridoy285@gmail.com : Hridoy Fx : Hridoy Fx
  2. miahraju135@gmail.com : MD Raju : MD Raju
  3. koranginews24@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক
৭ দিনের মধ্যে বাকী সকল অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়া হবে - করাঙ্গীনিউজ
  • Youtube
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৫:০৭ অপরাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৩ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

৭ দিনের মধ্যে বাকী সকল অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়া হবে

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ৪ জুলাই, ২০১৯

মোহাম্মদ আলী মমিন: সরকার হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ চারলেন সড়ক নির্মাণের লক্ষ্যে কামড়াপুর-বগলাবাজার হতে ধুলিয়াখাল পর্যন্ত ৭ কিলোমিটার এর ৯৭ একর রেলভূমি থেকে সকল অবৈধ স্থাপনার ৯৫ শতাংশ উচ্ছেদ অপসারণ করা হয়েছে। বাকী অবৈধ স্থাপনা ৭ দিনের মধ্যে গুড়িয়ে দেয়া হবে।

প্রকাশ, হবিগঞ্জের উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অঙ্গীকার বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এডভোকেট মোঃ আবু জাহির এর প্রত্যাশা বাস্তবায়নে সড়ক ও জনপথ বিভাগের মালিকানাধীন রেলভূমিতে চলমান সড়ককে চারলেনে উন্নীত করণের কার্যক্রম শুরু করা হয়।

বাস্তবে সরকার প্রধানের মাঠ প্রতিনিধি, হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ জেলা শহরকে উন্নয়নের মহাসড়কে যুক্ত করার প্রকল্পে ভূমির উপর অবৈধ স্থাপনা অপসারণে দৃঢ় পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

অবৈধ স্থাপনা অপসারণের নোটিশে অধিকাংশ করা স্থাপনা নিজেরাই সরিয়ে নিয়েছেন। বিগত ৩ সপ্তাহ একজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এর নেতৃত্বে একদল পুলিশের সহায়তায় সড়ক বিভাগের কর্মচারীরা সকল স্থায়ী অবকাঠামো গুড়িয়ে দিয়েছে।

বুধবার (৩ জুলাই) হবিগঞ্জ কালিগাছতলা-ধুলিয়াখাল পর্যন্ত বাইপাস সড়ক দর্শনে দৃশ্যমান হয়েছে রেলভূমি যেন যুদ্ধ বিদ্ধস্থ এলাকা। বাস্তবে সড়কের ১ কিঃমিঃ ৩টি, ২য় কিঃমিঃ ১টি, বাসস্ট্যান্ডে ৩টি, ২নং পুলের নিকট ২টি, পেট্টল পাম্পের ১টি অবৈধ স্থাপনা অক্ষত অবস্থায় দৃশ্যমান থাকায় জনমণে বিরূপ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে গুড়িয়ে দেয়ার দাবী জানান।

উচ্ছেদে দায়িত্বরত সড়ক বিভাগের এসডিই কাজী নজরুল ইসলাম ও সার্ভেয়ার আব্দুল করিম জানান, আগামী ৭ দিনের মধ্যেই বাতিরপুর, বগলাবাজার, গরুরহাটা ও অন্যান্য অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়া হবে ইনশাল্লাহ। তারা জানান, রেলভূমি ব্যক্তির নিকট বিক্রয়ের কোন বিধান নাই। সড়ক বিভাগে হস্তান্তরিত সকল প্রকারের অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দেয়ার জন্য উচ্চ পর্যায় থেকে কঠোর নির্দেশনা রয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
x