1. nafiz.hridoy285@gmail.com : Hridoy Fx : Hridoy Fx
  2. miahraju135@gmail.com : MD Raju : MD Raju
  3. koranginews24@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক
মাধবপুরে কৃষক বদু মিয়ার তরমুজ চাষে সফলতা - করাঙ্গীনিউজ
  • Youtube
  • English Version
  • রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:০৮ পূর্বাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৪ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

মাধবপুরে কৃষক বদু মিয়ার তরমুজ চাষে সফলতা

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: বৃহস্পতিবার, ৮ নভেম্বর, ২০১৮

মাধবপুর(হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি:
হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায় গোপীনাথপুর গ্রামের স্বল্প শিক্ষিত কৃষক বদু মিয়া এলাকার একজন আদর্শ চাষি হয়ে উঠেছেন। তার খামারে এখন বার মাসী তরমুজ উৎপাদিত হচ্ছে। হলদে রঙের এ তরমুজ খেতে সুস্বাদু। দেখতেও অনেক সুন্দর। চায়না হতে আমদানী করা নতুন জাতের তরমুজ ফল। এখন চাষ হচ্ছে মাধবপুরের এক কৃষকের খামারে। রাজধানী ঢাকার অভিজাত হোটেলগুলোতে এ জাতীয় তরমুজের প্রচুর চাহিদা।

বার মাস এ জাতের তরমুজ বাণিজ্যিক ভিত্তিতে চাষ করেন এ কৃষক বদু মিয়া। বদু মিয়ার দেখাদেখি অনেকেই এখন এ জাতীয় তরমুজ চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। অল্প সময়ে ফলন ও মূল্য ভাল পাওয়ায় প্রতিদিনই বিভিন্ন এলাকা থেকে কৃষকরা বদু মিয়ার কৃষি খামার দেখতে আসছেন। বদু মিয়া তরমুজ চাষাবাদের বাস্তব অভিজ্ঞতা দেখতে অনেক কৃষক এখন তার কাছে পরামর্শ চাইতে যায়।

কৃষক বদু মিয়ার সঙ্গে আলাপ করে বিদেশি হলুদ জাতের তরমুজের বীজ চায়না ও ভারত থেকে বীজ আমদানী করে তার জমিতে চাষাবাদ করে।

এখানকার মাটি ও আবহাওয়া এ জাতীয় তরমুজ চাষের উপযোগী। এরপরই তার চিন্তায় আসে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে হলুদ তরমুজ চাষ করার। এ বছর বদু মিয়া ৩ বিঘা জমিতে বিদেশ থেকে আমদানী করা তরমুজের চাষাবাদ করেছে। তানীয়া মনিয়া, ব্ল্যাকবেরী, সামমাম এই তিন জাতের তরমুজে বদু মিয়ার ক্ষেত এখন ভরে গেছে। জমি চাষাবাদ করতে বীজ সার পরিচর্যা সহ প্রতি বিঘায় তার খরচ পড়েছে ৩৫ থেকে ৪০ হাজার টাকা।

তার ক্ষেতে ফলানো তরমুজ রাজধানীতে সরবরাহ করা হয়। মৌসুম ভেদে প্রতি কেজি তরমুজ ১শ থেকে দেড়শ টাকা করে বিক্রি হচ্ছে। বদুমিয়ার তরমুজের সফলতা দেখে মাধবপুরের অনেক কৃষক লাভজনক বারমাসী তরমুজ চাষ করতে এগিয়ে এসেছেন। এখন মাধবপুরে প্রায় ১৫/২০জন কৃষক বদু মিয়ার তরমুজ চাষাবাদ দেখে তরমুজ চাষাবাদ করে সফলতার মুখ দেখছেন।

স্থানীয় কৃষকরা জানান, উঁচু এলাকায় প্রায় অধিকাংশ সময় জমি পতিত পড়ে থাকত। কৃষক বদু মিয়ার নতুন জাতের তরমুজ ও অন্যান্য সবজির চাষবাদের সংবাদ কৃষি বিভাগের নজরে এলে ওই এলাকায় বিএডিসি’র উদ্যোগে শুকনো মৌসুমে সেচের জন্য সরকারি ভাবে গভীর নলকুপ ও বিদ্যুতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এখন খরা মৌসুমেও দক্ষিণাঞ্চলের কৃষকরা গভীর নলকুপ থেকে সেচ সুবিধা পাচ্ছে। মাধবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আতিকুল হক জানান, কৃষক বদু মিয়ার নতুন জাতের হলুদ তরমুজ উৎপাদনে কৃষিতে নতুন দিগন্তের সূচনা করেছে। তার হাত ধরে এখন কৃষকরা এ জাতের তরমুজ ও অন্যান্য ফসল করতে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন।

উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে বদু মিয়াকে সব ধরনের সহযোগিতা ও পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। কৃষক বদু মিয়া এখন মাধবপুর সহ বিভিন্ন অঞ্চলের একজন আদর্শ মডেল।

ছবি সংযুক্ত
মাধবপুরে প্রাথমিক শিক্ষার
মান উন্নয়নে কর্মশালা
মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি
মাধবপুরে প্রাথমিক শিক্ষায় ঝড়ে পড়া রোধ, অনুপস্থিতির হার কমানো সহ টেকসই প্রাথমিক শিক্ষায় মান সম্পন্ন শিক্ষার লক্ষ্যে যোগাযোগ কৌশল বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহষ্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে হবিগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাকের সভাপতিত্বে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট বিভাগের প্রাথমিক শিক্ষার উপ-পরিচালক তাহমিনা খাতুন। অন্যান্যদের মধ্যে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ, হবিগঞ্জ জেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জাফর সালাহ আহম্মেদ, আ ন ম আহসানুল হক, সিলেট জেলা প্রাথমিক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আমিনুল হক, মুক্তিযোদ্ধা সুকোমল রায়, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক মধু, প্রেসক্লাব সেক্রেটারী সাব্বির হাসান, মাধবপুর প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ছিদ্দিকুর রহমান, সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান প্রমুখ। কর্মশালায় মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, শিক্ষক, এসএমসির সভাপতি, অভিভাবক প্রতিনিধি সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
x