1. nafiz.hridoy285@gmail.com : Hridoy Fx : Hridoy Fx
  2. miahraju135@gmail.com : MD Raju : MD Raju
  3. koranginews24@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক
হবিগঞ্জ-১ আসনে আ’লীগের মনোনয়ন পেতে ৬ প্রার্থীর জোর লবিং - করাঙ্গীনিউজ
  • Youtube
  • English Version
  • রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৫:০১ পূর্বাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৪ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

হবিগঞ্জ-১ আসনে আ’লীগের মনোনয়ন পেতে ৬ প্রার্থীর জোর লবিং

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিনিধি, হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল আসনে) আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা খুব একটা স্বস্থিতে নেই। গেল উপ-নির্বাচন ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পরপরই আওয়ামী লীগের ঘরে শুরু হয় নতুন মাত্রার রাজনৈতিক মেরুকরণ। দলের ভেতর বিভাজন, যা এখনও বিদ্যমান।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হবে। তফসিল ঘোষণার পরপরই প্রবল হয়ে উঠতে শুরু করেছে হবিগঞ্জ-১ (নবীগঞ্জ-বাহুবল) আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়নকে ঘিরে নানান গুঞ্জন! ফলে আগামী জাতীয় নির্বাচনে চরম প্রভাব পড়ার সম্ভাবনাকেও উড়িয়ে দিচ্ছেন না দলের কোনো কোনো নেতাকর্মীরা।

তবে তারা আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন, কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে শিগগিরই দ্বন্দ্ব নিরসনে তড়িৎ পদক্ষেপ গ্রহণ করা না হলে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে দিতে হতে পারে চরম মাশুল। কোনো কোনো প্রার্থীর কর্মী সমর্থকরা সরকারের ১০ বছরের উন্নয়ন কর্মকান্ড জনসম্মুখে তুলে ধরার চেয়ে বেশি ব্যস্ত সম্ভাব্য প্রার্থীদের সম্পর্কে বিষোদগারে। চায়ের স্টল থেকে শুরু করে বিভিন্ন মহলে ও ঘরোয়া আড্ডায় দু’একজন প্রার্থীর ব্যক্তিগত সমালোচনায় তারা মুখর। এ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীগণ অবস্থান করছেন ঢাকায়। নৌকার টিকেট পেতে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে করছেন লবিং-তদবির ব্যস্ত রয়েছেন।

জানা গেছে, হবিগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামীলীগের সংসদ সদস্য বর্ষীয়ান প্রয়াত জননেতা আলহাজ্ব দেওয়ান ফরিদ গাজী মারা যাবার পর ২০১২ সালে নবীগঞ্জ-বাহুবল আসনে উপ-নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী শেখ সুজাতের কাছে অল্প ভোটের ব্যবধানে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ডাঃ মুশফিক হোসেন চৌধুরী পরাজিত হন। সে সময় পরাজয়ের কারন হিসাবে দলীয় নেতাকর্মীকে দায়ী করা হয়। পরে ২০১৪ সালে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের একাধিক প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিয়ে ছিলেন।

স্থানীয় নেতাকর্মীরা জানান, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নেতাকর্মীদের মত পার্থক্য দেখা দেয়। নেতাকর্মীদের অভ্যন্তরীণ ক্ষত সৃষ্টি হলে শেষ পর্যন্ত দলীয় কোন্দলে গড়ায়। একাদশ জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দলটির মধ্যে বাড়তে থাকে তীব্র অসন্তোষ ও ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া। এ নির্বাচনে হবিগঞ্জ-১ আসনে কে পাচ্ছেন দলের মনোনয়ন। এ নিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে আলোচনার শেষ নেই। এ পর্যন্ত সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ৬ জনের নাম শোনা গেছে।

তাঁরা হলেন-হবিগঞ্জ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডাঃ মুশফিক হোসেন চৌধুরী, মরহুম আলহাজ্ব দেওয়ান ফরিদ গাজীর তনয় জেলা আওয়ামীলীগ নেতা দেওয়ান শাহনেওয়াজ মিলাদ গাজী, সংরক্ষিত মহিলা আসনের বর্তমান এমপি এডঃ আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরী, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডঃ আলমগীর চৌধুরী, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা আব্দুল মুকিত, হবিগঞ্জ জেলা তাতীলীগের সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মুদ্দত আলী।

স্থানীয় লোকজন জানান, বর্তমান সরকারের এই আসনের এমপি জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু, নবীগঞ্জ-বাহুবল আওয়ামীলীগ তৃনমূল দাবী আওয়ামলীগের দুর্গ হিসাবে পরিচিত নবীগঞ্জ-বাহুবল উপজেলা নিয়ে গঠিত হবিগঞ্জ-১ আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী দেয়ার দাবি। এ আসনে মরহুম জননেতা আলহাজ্ব ফরিদ গাজী টানা তিনবারের এমপি ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
x