1. nafiz.hridoy285@gmail.com : Hridoy Fx : Hridoy Fx
  2. miahraju135@gmail.com : MD Raju : MD Raju
  3. koranginews24@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক
চুনারুঘাটে বর্ণিল সাজে সেজেছে মন্ডপগুলো - করাঙ্গীনিউজ
  • Youtube
  • English Version
  • রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৫৭ পূর্বাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৪ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

চুনারুঘাটে বর্ণিল সাজে সেজেছে মন্ডপগুলো

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: শনিবার, ১৩ অক্টোবর, ২০১৮

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: ধবল সাদা কাশফুল, ভোরের বাতাসে শিউলী ফুলের সুবাস জানান দিচ্ছে প্রকৃতির ঋতুচক্রে এখন শরৎকাল। বাতাসে পূজোর গন্ধ বলছে এসেছে দুর্গোৎসব। দুর্গাপূজা মানেই বাহারী সাজের বিরাটকায় তোরণ, আর গ্রামাঞ্চল ও শহরজুড়ে বর্ণিল আলোকসজ্জা। প্রতিমা আর সাজে আকর্ষণ আর নান্দনিক আবহ বাড়াতে খরচের মায়া করছেন না আয়োজকরা।

সুদৃশ্য তোড়ন, আলোকসজ্জা, ডিজিটাল সাউন্ড আর চিরচেনা ঢাকের বাদ্যি, পুজো আয়োজনে কোনো কিছুরই কমতি নেই চুনারুঘাটের মন্ডপগুলোতে। সবচেয়ে সুন্দর আর আকর্ষণীয় রূপে দেবীকে ভক্তদের সামনে উপস্থাপনে যেন পাড়ায় পাড়ায় চলছে প্রতিযোগীতা। প্রতিমার রঙ, সাজ সজ্জা, অলঙ্কারে আধুনিকতার পাশাপাশি লেজার লাইট আর ডিজিটাল শব্দ যন্ত্রের ব্যবহারে যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা।মন্ডপে মন্ডপে দেবী দর্শনে তাই খুব ব্যস্ত ভক্তরা।

স্থানীয়রা জানান, জাঁকজমক আর সাজসজ্জায় এবার চমক দেখাবে উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের ইকরতলী দুর্গা মন্দির। এ মন্ডপের পূজা আয়োজনে দেখা গেল ভিন্নতার ছোঁয়া। মন্ডপে ঢুকতেই সুদৃশ্য তোড়ণ। সে তোড়ণ পেরিয়ে ভেতরে ঢুকতেই চোখ আটকে যাবে চোখ ধাঁধানো ঝলমলে আলোর ঝলকানিতে। রাতের আঁধারে রূপালী আলোয় মন্ডপের প্রবেশ পথ যেন এক মায়াপুরী। নান্দনিক নকশার প্যান্ডেলে আধুনিকতা আর নতুনত্বের ছাপ প্রশংসা কুড়াচ্ছে ভক্তদের।

আয়োজকরা জানালেন, মধ্য শহরে না হলেও প্রতি বছর প্রতিমা তৈরীতে নান্দনিকতা আর উৎসব আয়োজনে ভিন্নতার কারণে উপজেলার ইকরতলী মন্দিরের বিশেষ কদর রয়েছে ভক্তদের মধ্যে। তাই প্রতিবছরের মত এবারেও প্রচুর দর্শনার্থী এ মন্দিরে আসবেন।

এ মন্দিরের আয়োজকরা আরো জানান, আমরা এবারের পুজোয় দর্শনার্থীদের জন্য আধুনিক এলইডি লাইট এনেছি, প্যান্ডেল ও সাজসজ্জায় রয়েছে চমক। আমরা প্রতিমা তৈরীতে এবার ভিন্নতা আনার চেষ্টা করেছি। তবে লোডশেডিংয়ের যে অবস্থা তাতে এত পরিশ্রমের পরও শঙ্কায় আছি। কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন পুজোর দিন গুলোতে যেন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিরবিচ্ছিন্ন থাকে।

বরাবরের মত আকর্ষণীয় এলইডি লাইট নির্মিত তোরণ দিয়ে ভক্তদের আকর্ষণ করছে রাজার বাজারের বাবুর বাড়ীর মন্দির, বিশগাঁও মনিপুরী মন্দির, আলী রাজাপুর সার্বজনীন শ্রী-শ্রী দূর্গা মন্দির ও উপজেলার বেশ কয়েকটি মন্দির সহ পাশাপাশি গ্রাম-গঞ্জের মন্দিরও। ঝলমলে আলোর এ তোরণ দেখতে এসেছেন দূর দূরান্তের দর্শনার্থীরা।

সাজসজ্জা আর আয়োজনের বরাবরের মতই আলোচনায় রয়েছে আমু চা বাগান দুর্গা মন্দির, ধরমনাথ নালুয়া চা বাগান মন্দির ও নালুয়া পূর্বাটিলা দুর্গা মন্দির। নানা রঙের আল্পনা আর দেবী প্রতিমার নান্দনিকতাই তাদের মূল আকর্ষণ বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।

এছাড়া শহরের বিভিন্ন মন্ডপে রয়েছে আলাদা আকর্ষণ। এবং পাল বাড়ীর মন্দির, ছয়শ্রীর মন্দির সহ উপজেলার বিভিন্ন মন্দিরে দর্শনার্থীদের জন্য পুজো আয়োজন হয়েছে সাধ্যের সবটুকু দিয়ে। এমনই দাবি করেছেন আয়োজকরা।

চুনারুঘাট উপজেলায় এবার ৭৯টি মন্ডপে দুর্গাপূজা উদযাপিত হবে। এর মধ্যে ১০টি পূজা মন্ডপ ব্যক্তিগত ও ৬৯টি পূজা মন্ডপ সার্বজনী রয়েছে।

শান্তিপূর্ণভাবে পূজা উদযাপন করতে পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে ও অনেক মন্দিরে পূজা উদযাপন কমিটি ব্যক্তিগত উদ্যোগে সি-সি ক্যামেরা লাগিয়েছেন। পুলিশের পাশাপাশি আনসার সদস্যরাও নিরাপত্তায় কাজ করছে বলে জানিয়েছেন চুনারুঘাট থানা অফিসার ইনচার্জ কে এম আজমিরুজ্জামান।

আহম্মাদাবাদ ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবেদ হাসনাত চৌধুরী সনজু জানান, আমার ইউনিয়নের ৯টি পূজা মন্ডপে নিরাপত্তার জন্য গ্রাম পুলিশকে দায়িত্ব দিয়েছি এবং নিজস্ব বলেন্ডিয়ার সৃস্টি করে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে প্রতিটা পূজা মন্ডপে ৭জন করে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
x