1. nafiz.hridoy285@gmail.com : Hridoy Fx : Hridoy Fx
  2. miahraju135@gmail.com : MD Raju : MD Raju
  3. koranginews24@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক
নির্দোষ প্রমাণিত হলেন প্রধান শিক্ষক স্বপ্না দাশ সামন্ত - করাঙ্গীনিউজ
করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৩ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

নির্দোষ প্রমাণিত হলেন প্রধান শিক্ষক স্বপ্না দাশ সামন্ত

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: সোমবার, ১৬ জুলাই, ২০১৮

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার ৭নং করগাঁও ইউনিয়নে অবস্থিত পাঞ্জারাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপ্না দাশ সামন্তের বিরুদ্ধে যত দোষ চাপিয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে অভিযোগ দেয়া হয়েছিল। তদন্তে অধিকতর যাচাই-বাছাই শেষে তিনি নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছেন। এমনকি অভিযোগকারীগণ লজ্জা পেয়েছেন। অপরদিকে প্রধান শিক্ষক পুরস্কার হিসেবে পেলেন নবীগঞ্জ পৌর এলাকার সালামতপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব। সস্প্রতি উর্ধ্বতন কর্মকর্তার আদেশে প্রধান শিক্ষক স্বপ্না দাশ সামন্তকে স্ব-সম্মানে বদলি করে ওই স্কুলে দায়িত্ব দেয়ায় তিনি সন্তুষ্ট।

সুত্রে প্রকাশ, নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের পাঞ্জারাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক স্বপ্না দাশ সামন্তের বিরুদ্ধে বিগত ২০১৬ সালে সরকার প্রদত্ত শ্লিপের ৪০ চল্লিশ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে নবীগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন সাবেক ইউপি সদস্য মনর মিয়া। তার অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্তকারী কর্মকর্তা ওই অভিযোগের কোন সত্যতা পাননি।

এতে অভিযোগকারী ইউপি সদস্য মনর মিয়া তিনি নিজেই তার অভিযোগ প্রত্যাহারের আবেদন করেন। কিন্তু সাবেক উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার তার অভিযোগ কোন ভাবেই প্রত্যাহার করেননি বরং ওই অভিযোগের সাথে আরো কিছু মিথ্যা অভিযোগ সংযুক্ত করে অধিকতর তদন্তের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা উপ-পরিচালক বরাবর প্রেরণ করেন। কিন্তু এলাকার সচেতন মহল প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগের আসল মতলব খুঁজতে থাকেন। এক পর্যায়ে তারা বুঝতে পারেন সম্পূর্ণই কারসাজি ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষকদের। পরে গ্রামবাসী ও সচেতন মহল আরেকটি অভিযোগ প্রাথমিক শিক্ষা উপ-পরিচালক বরাবর প্রেরণ করেন। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্তে বেড়িয়ে আসে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য, তাহা হল ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষকদের  শ্লিপের টাকার ভাগ-ভাটোয়ারা না দেয়া এবং সহকারী শিক্ষকদের ইচ্ছে মতো চলাফেরা করতে না দেয়ায় তারা প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ দায়ের করেছেন।

প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ১৫ অক্টোবর ২০১৭ সালে বিভাগীয় মামলা রুজু করা হয়। ওই অভিযোগের জবাব গত ৭ ডিসেম্বর ২০১৭ইং শুনানি হয়। এতে দাখিলকৃত জবাবে এবং সংশ্লিষ্ট কাগজপত্র পর্যালোচনায় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হওয়ায় তাকে বিভাগীয় মামলা থেকে প্রত্যাহার করে তাকে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালনে নতুন কর্মস্থল নবীগঞ্জ পৌর এলাকার সালামতপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আদেশ দেয়া হয়েছে।

মামলা প্রত্যাহারের আদেশ কপি গত ১৭ মে ২০১৮ ইং প্রাথমিক শিক্ষা সিলেট বিভাগীয় উপ-পরিচালক তাহমিনা খাতুন স্বাক্ষরিত প্রধান শিক্ষক স্বপ্না দাশ সামন্তকে জানানো হয়। প্রধান শিক্ষক স্বপ্না দাশ সামন্তকে তার সাবেক কর্মস্থল পাঞ্জারাই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বিভিন্ন ষড়যন্ত্রমূলক চক্রান্তের অবসান ঘটায় তাকে ধন্যবাদ জানান বাংলাদেশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক সমিতি নবীগঞ্জ উপজেলা সভাপতি রাহেলা খানম, সাধারণ সম্পাদক বিপুল চন্দ্র দেব এবং অনেক প্রধান শিক্ষক ও সমাজের সচেতন মহলের গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
x