Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  চুনারুঘাটে গাঁজাসহ যুবক আটক #  জকিগঞ্জে ছেলের হাতে মা খুন #  গাছের সাথে বেঁধে চোরকে গণপিটুনি #  নাসিরনগরে একদিনে ৬ জন করোনায় আক্রান্ত #  নবীগঞ্জে মাদক ব্যবসায়ীকে ৩ মাসের জেল #  সিলেটে পরিবহন শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ, ভাঙচুর #  অপমৃত্যু নয়, স্বাভাবিক মৃত্যুর প্রার্থনা #  দেশে নতুন শনাক্ত ২৯১১, মৃত্যু ৩৭ #  আমরা দেশের মানুষ ভালো থাকতে চাই #  শতবর্ষে মিরপুর দাখিল মাদ্রাসা, পাশের হারে উপজেলায় সেরা #  ভূমধ্যসাগরে ৩৬ বাংলাদেশি নিহতের প্রধান আসামি সিলেটে গ্রেফতার #  হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হলেন তাহিরপুরের ইউএনও বিজেন ব্যানার্জী #  হবিগঞ্জের খোয়াই নদী থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার #  শায়েস্তাগঞ্জে মেয়র ছালেক মিয়াসহ ১৫ জনের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ #  গোলাপগঞ্জে ১২ জনের করোনা জয়

গণহারে মাস্ক পরতে মানা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

করাঙ্গীনিউজ ডেস্ক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বলছে, গণহারে মাস্ক পরার কারণে বিশ্বজুড়ে এই সুরক্ষা-সরঞ্জামের ব্যাপক সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কিংবা আক্রান্তদের সেবায় নিয়োজিত নন, এমন ব্যক্তিদের মাস্ক পরতে মানা করেছে তারা। সোমবার জেনেভায় সংস্থাটির সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে কর্মকর্তারা বলেন, যাদের সত্যিই মাস্ক দরকার, গণব্যবহারের কারণে সৃষ্ট সঙ্কটে তারা ঝুঁকির মুখে পড়ছেন। বিবিসি

করোনাভাইরাস আতঙ্কে সারা বিশ্ব জুড়ে মাস্ক পরার হিড়িক পড়েছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রতিবেদন বলছে, এ মুহূর্তে বিশ্ব জুড়ে  মাস্কের সঙ্কট নিয়ে উদ্বিগ্ন ডব্লিউএইচও।

সোমবার সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার জরুরি স্বাস্থ্য কর্মসূচির নির্বাহী পরিচালক মাইক রায়ান বলেন, ‘গণহারে মাস্ক পরার কারণে বিশ^ জুড়ে এই সরঞ্জামের ব্যাপক সঙ্কট দেখা দিয়েছে। যেসব স্বাস্থ্যকর্মী সামনে থেকে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় নিয়োজিত, বর্তমানে তারাই সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে রয়েছেন। কেননা তারা প্রতিদিন, প্রতি মুহূর্তে ভাইরাসটির সংস্পর্শে আসছেন। তাদের মাস্ক না থাকার বিষয়টি ভয়াবহ।’

আক্রান্ত না হলে মাস্ক পরার প্রয়োজন নেই উল্লেখ করে রায়ান আরও বলেন, ‘গণহারে মাস্ক পরার কারণে কোনো সুবিধা হয়েছে বলে নির্দিষ্টভাবে জানা যায়নি, উল্টে মাস্ক সঠিকভাবে না পরার কারণে হিতে-বিপরীত হওয়ার প্রমাণ মিলেছে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সংক্রামক রোগ বিভাগের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মারিয়া ভ্যান কারকোভ বলেন, ‘যাদের সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন আমরা তাদের ক্ষেত্রে মাস্ক ব্যবহারের বিষয়টিতে সবচেয়ে গুরুত্ব দিচ্ছি। সাধারণ মানুষকে আমরা ততক্ষণ পর্যন্ত মাস্ক পরার সুপারিশ করব না, যতক্ষণ পর্যন্ত তারা অসুস্থ নয়। কেননা শুধু অসুস্থ হলেই আপনার মাধ্যমে ভাইরাসটি বিস্তার লাভ করবে। আমরা তাদেরকেই মাস্ক পরার সুপারিশ করব যারা অসুস্থ এবং যারা অসুস্থদের চিকি‍ৎসাসেবা দিচ্ছেন। তাদের কাছে যাতে সঠিক সময়ে মাস্ক পৌঁছায় তা নিশ্চিত করাই এই মুহূর্তে আমাদের সবার প্রধান দায়িত্ব ও কর্তব্য হওয়া উচিত।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক টেডরস অ্যাডানাম গেব্রিয়েসাসও এদিনের সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।