1. nafiz.hridoy285@gmail.com : Hridoy Fx : Hridoy Fx
  2. miahraju135@gmail.com : MD Raju : MD Raju
  3. koranginews24@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক
নবীগঞ্জে চেয়ারম্যান পদে দু’ মহিলা প্রার্থী - করাঙ্গীনিউজ
  • Youtube
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৪:৪২ অপরাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৩ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

নবীগঞ্জে চেয়ারম্যান পদে দু’ মহিলা প্রার্থী

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: রবিবার, ৮ মে, ২০১৬

এটিএম সালাম, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) : হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলায় এবারই প্রথম আগামী ২৮ মে অনুষ্টিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দু’জন নারী নেতৃত্ব প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

 

একজন হলেন উপজেলার বাউশা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান বিশিষ্ট সমাজ সেবক আব্দুল হাই’র সহধর্মীনি ডেইজি চৌধুরী (স্বতন্ত্র) এবং অপরজন আউশকান্দি ইউনিয়নে জাতীয় পার্টি মনোনিত প্রার্থী শাহিনা আক্তার চৌধুরী।

 

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নবীগঞ্জ উপজেলায় এর আগে কোন নারী নেত্রী সরাসরি ভোটে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হিসেবে লড়াই করেন নি। এবারই প্রথম বারের মতো দু’জন নারী চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন।

 

ফলে এই দু’ ইউনিয়নের সাধারণ ভোটারের মধ্যে কৌতুহলের শেষ নেই। আলোচনার ঝড় উটেছে ওই ইউপি দু’টিতে। আগামী ২৮ মে পঞ্চম ধাপে এই উপজেলার ১৩ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্টিত হবে।

 

ইতিমধ্যে রাজনৈতিক প্রতীকে নির্বাচন অনুষ্টিত হওয়ায় উপজেলার সর্বত্র উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। নির্বাচনের হিসাব নিকাশ শুরু হয়েছে ভোটারের মধ্যে। বেশীর ভাগ ভোটারের অভিমত ইউনিয়ন বা এলাকার উন্নয়ন করতে হলে সরকার দলীয় প্রার্থী জয়লাম করতে হবে।

 

অন্যতায় এলাকার উন্নয়ন করা সম্ভব হবে না। এরমধ্যে গত ৪ঠা মে মনোনয়ন পত্র দাখিল, ৫ মে বাচাই কাজ সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ১২ মে প্রার্থী প্রত্যাহারের শেষ দিন। ১৩ মে আনুষ্টানিকভাবে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্ধ দেয়া হবে।

 

 

এছাড়া আওয়ামীলীগ ১৩টি ইউনিয়নে প্রার্থী দিলেও বিএনপি ১২টি ও জাপা ৯টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী দিয়েছে। এরমধ্যে উপজেলার বাউশা ইউপিতে সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই এর সহধর্মীনি ডেইজি চৌধুরী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

 

 

ওই ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান আনোয়ারুর রহমান বিএনপির মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ( বিএনপির বিদ্রোহী) হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। এখানে আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু সিদ্দীক নৌকা প্রতীকে এবং যুবদলের সাবেক আহ্বায়ক মজিদুর রহমান মজিদ ধানের শীষ প্রতীকে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

 

 

উক্ত ইউপিতে লড়াইটি চর্তুর্থমুখী লক্ষ্য করা গেলে সময় ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে ত্রি-মূখী লড়াই হওয়ার সম্ভাবনা বেশী। ওই ইউপিতে বর্তমানে নারী প্রার্থী ডেইজি চৌধুরী ইতিমধ্যে আলোচনার ঝড় তোলেছেন। এখানে যেই বিজয়ের মালা পড়–ক নৌকার প্রার্থীর সাথেই হবে মুল প্রতিদ্বন্ধিতা।

 

 

আউশকান্দি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন জাপা মনোনিত (এরশাদ) শাহিনা আক্তার চৌধুরী। তিনি উপজেলা জাপার সহ সভাপতি ইউছুপ চৌধুরীর সহধর্মীনি। এখানে নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়াই করছেন বর্তমান চেয়ারম্যান দিলাওর হোসেন। আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী লন্ডন প্রবাসী মুহিবুর রহমান হারুন।

 

বিএনপির কাউছার আহমদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ কাওসার মিয়া ও হিরা মিয়া। মনোনয়ন পত্র দাখিলের পরপরই দু’ ইউপিতে দু’জন নারী প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে সরাসরি ভোটে প্রতিদ্বন্ধিতায় অংশ নেয়ার উপজেলার সর্বত্র আলোচনার ঝড় ওঠে।

 

 

এ ব্যাপারে তাদের অনুভুতি জানার জন্য দৈনিক হবিগঞ্জের জনতার এক্সপ্রেস পরিবারের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করলে, বাউশা ইউপির প্রার্থী ডেইজি চৌধুরী বলেন, তার স্বামী দীর্ঘদিন ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন।

 

বিগত দু’বার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নেয়ার কারনে তিনি ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। তাই স্বামীর স্বপ্ন বাস্তবায়ন এবং জনসেবার ব্রত থেকেই এই নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।

 

 

তিনি বলেন, এখন মানুষ রাজনৈতিক হানাহানির কারনে রাজনৈতিক ল গুলোকে পছন্দ করেন না। এ জন্য স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছি। জয়ের ব্যাপারে কতটুকু আশা করেন, এমন প্রশ্নের জবাবে বলেন, জয় পরাজয় বড়কথা নয়, মানুষের সেবা ও কল্যানের জন্য কাজ করতে চাই।

 

এই ইউনিয়ন বাসীকে নিয়ে তার স্বামী সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই অনেক স্বপ্ন দেখেছেন, দেখিয়েছেন। তা বাস্তবায়নের জন্যই নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। মানুষের ভালবাসায় বিজয়ী হবো ইনশাল্লাহ।

 

আউশকান্দি ইউপিতে চেয়াম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতাকারী নারী নেত্রী (জাপা মনোনিত) শাহিনা আক্তার চৌধুরী বলেন, তিনি কিশোরী বয়সেই স্বপ্ন দেখতেন বড় হয়ে মানুষের সেবা করবেন।

 

সেই স্বপ্ন পুরন করতেই পল্লী বন্ধু হুসাইন আহমেদ এরশাদ (জাপা) মনোনিত প্রার্থী হিসেবে লাঙ্গল প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছি। বিজয়ী হওয়ার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
x