Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  সিলেটে জাতীয় পিঠা উৎসব শুরু আজ #  মাধবপুরে চোরাই বৈদ্যুতিক তারসহ শ্রমিকলীগ নেতা আটক #  বানিয়াচঙ্গে যুবকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার #  জর্ডানে উদ্ধার হওয়া চুনারুঘাটের খাদিজা দেশে আসছেন রোববার #  চুনারুঘাটে ভারতীয় চা পাতাসহ আটক ২ #  সিলেটে ৪৮ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া বাবার সন্ধান পেলেন সন্তানেরা #  ছাতকে নববধূকে নিয়ে ফেরার পথে ডাকাত সর্দার গ্রেফতার #  ‘ভিক্ষুকমুক্ত সিলেট’ পররাষ্ট্রমন্ত্রী #  জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা ১ম হয়েছে সানশাইন স্কুলের তুহিন #  এক বছরে বিমানে লাভ ২৭৩ কোটি টাকা #  শায়েস্তাগঞ্জের বাংলা কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টারের শিক্ষা সফর #  মিরপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষকে সংবর্ধনা #  জকিগঞ্জে অগ্নিকাণ্ড: ২ কোটি টাকার ক্ষতি #  যুব বিশ্বকাপের পর্দা উঠছে আজ #  সিলেটে থেকেও চুনারুঘাটের ধর্ষণ মামলার আসামী বানিয়াচংয়ের ফজলু

পাকিস্তানের ৬২৯ তরুণীকে চীনে বিক্রি

করাঙ্গী ডেস্ক: পাকিস্তানি গোয়েন্দাদের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, কমপক্ষে ৬২৯ জন পাক তরুণীকে কনে হিসেবে চীনের বিভিন্ন নাগরিকের কাছে বিক্রি করে দেয়া হয়েছে।

গত ১৮ মাস ধরে চীনে এসব নারীকে পাচার করেছে পাকিস্তানের মানবপাচারকারীরা। গোয়েন্দাদের অভিযোগ, এ বিষয়ে পাক প্রশাসনকে অবগতি করা হলেও তারা আশানুরূপ কোনো ব্যবস্থাই গ্রহণ করেনি। যে কারণে চীনে নারী পাচার রোধ করা সম্ভব হচ্ছে না।

চলতি বছরের জুনে পাচার হওয়া নারীদের একটি তালিকা তৈরি করে প্রশাসনকে দেয়াও হয়েছিল বলে জানান পাক গোয়েন্দারা।

এ বিষয়ে এক পাক কর্মকর্তা বলেন, প্রশাসন থেকে যথেষ্ট কঠোরতা না দেখানোয় পাচারচক্ররা আরও বিস্তৃত হয়েছে। তাদের অপরাধের মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলছে। কারণ এসব পাচারচক্রের সদস্য জানে, বিপদে পড়লেও প্রশাসনের অচলাবস্থার সুযোগে সেখান থেকে বেঁচে যেতে পারবে তারা।

গোয়েন্দাদের একটি নথিতে ৬২৯ পাক নারীর জাতীয় পরিচয়পত্র এবং তাদের চীনা স্বামীদের নাম ও বিয়ের তারিখ উল্লেখ করা হয়েছে।

২০১৮ থেকে ২০১৯ সালের এপ্রিলের মধ্যে ওই নারীদের কনে হিসেবে চীনে পাচার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা।

সীমান্ত দিয়ে পাক তরুণীদের চীনে বিক্রি করে দেয়ার ঘটনা প্রায়ই ঘটে। চলতি বছরের অক্টোবরে মানবপাচারের ঘটনায় ৩১ চীনা নাগরিককে অভিযুক্ত করেছিলেন ফয়সালাবাদের একটি আদালত।

সূত্র: দ্য হিন্দু, টেলিগ্রাফ, বিবিসি