• Youtube
  • English Version
  • বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০১:৩৮ পূর্বাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৫ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

হবিগঞ্জ শহরে ব্যবসায়ীদের টানা ২য় দিনের সড়ক অবরোধ

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: সোমবার, ১ এপ্রিল, ২০২৪

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি:  হবিগঞ্জ শহরের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঘন ঘন চুরির প্রতিবাদে শহরের প্রধান সড়ক অবরোধ করে টানা ২য় দিনের মতো বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা করেছেন ব্যবসায়ীরা। এ সময় প্রধান সড়কে প্রায় ২ঘন্টা যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে পুরো শহর জোরে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

 

আন্দোলন চলাকালে ব্যবসায়ীদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে অবরোধ কর্মসূচিতে যোগদেন হবিগঞ্জ সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান আওয়াল, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির পরিচালক হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মশিউর রহমান শামীম, ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি ব্যকস্ এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ আলমগীর, হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী জনপ্রিয় কন্ঠ শিল্পী সৈয়দ আশিকুর রহমান আশিক, এডভোকেট রাফিউর রহমান চৌধুরী, জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. ইশতিয়াক রাজ চৌধুরী, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসিব খান চৌধুরী পাবেল, প্রেসক্লাব যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শরীফ চৌধুরী, মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মফিজুর রহমান বাচ্চু, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদরুল আলম চৌধুরী, হবিগঞ্জ যাত্রী কল্যাণ সমিতির সভাপতি শাহ জালাল উদ্দিন জুয়েল। এছাড়াও আন্দোলনে অংশ নেন শহরের কয়েকশ ব্যবসায়ী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

 

পরে ঘটনাস্থলে হবিগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার হাসিবুল ইসলাম উপস্থিত হয়ে ব্যবসায়ীদের আশ্বস্ত করে বলেন, হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার ছুটিতে আছেন। ২ দিনের মধ্যে তিনি আসবেন। তখন আমরা ব্যবসায়ীদের নিয়ে আলোচনায় বসবো। আমরা সর্বোচ্চ পর্যায়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে চোরদের গ্রেফতার ও লুণ্ঠিত মালামাল উদ্ধার করা হবে। সেই সাথে শহরে রাত্রিকালীন পুলিশী টহল আরো জোরদার করা হবে।

 

ব্যবসায়ীরা জানান, ইদানিং শহরের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ঘনঘন চুরি সংঘটিত হয়েছে। বিষয়টি পুলিশকে জানানোর পাশাপাশি একাধিক মামলার পরও কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি পুলিশ। ব্যবসায়ীরা অভিযোগ করে বলেন পুলিশের কতিপয় সোর্সদের যোগসাজশে এসব চুরি সংঘটিত হচ্ছে।

 

 

জানা যায়, গত শুক্রবার দিবাগত রাতে শহরের টাউন হল রোড এলাকায় অবস্থিত গেজেট হবিগঞ্জ নামের মোবাইল ফোনের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি চুরি হয়। চোরেরা নগদ টাকা, মোবাইলসহ প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।

 

এর প্রতিবাদে টানা ২য় দিনের মত রবিবার দুপুর সাড়ে ১২ থেকে শহরের প্রধান সড়ক টাউন হল রোড এলাকায় রাস্তায় বসে ২ ঘন্টা অবরোধ করেন ব্যবসায়ীরা। অবরোধের ফলে প্রধান সড়ক সহ পুরো শহরে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। ভোগান্তিতে পড়ে দুর্ভোগ পোহাতে হয় বিভিন্ন স্থান থেকে আসা সাধারণ মানুষজনের।
গেজেট হবিগঞ্জ প্রতিষ্টানের স্বত্বাধিকারী আরাফাত চৌধুরী জানান, আমার দোকান এখন পর্যন্ত ৩ বার চুরি হয়েছে। একটি ব্যবসা প্রতিষ্টানে যদি ৩ বার চুরি হয়, তাহলে আর কিভাবে ব্যবসা করা যায়। তিন বারে প্রায় ১৫ থেকে ১৬ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে যায়।

 

এদিকে কয়েকজন ব্যবসায়ী বলেন, শনিবারের আন্দোলনের সময় হবিগঞ্জ সদর সার্কেল এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খলিলুর রহমান অবরোধ নিয়ে মশকারি করে বলেন “ওরা যখন ক্লান্ত হবে এমনিতেই রাস্তা ছেড়ে চলে যাবে”। ওরা ফটকাবাজ বলেও মন্তব্য করেন। জেলা পুলিশের শীর্ষ পর্যায়ের একজন কর্মকর্তার এমন মন্তব্যে ক্ষোব্ধ হয়ে উঠেন ব্যবসায়ীরা। তাই তারা পুলিশ কর্মকর্তা খলিলুর রহমানের অপসারণ ও মালামাল উদ্ধারের দাবি জানিয়ে রবিবার ২য় দিনের মতো এই অবরোধ পালন করেন।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ