• Youtube
  • English Version
  • সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৫ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

বাহুবলের রূপাইছড়া রাবার বাগানে সরকারী গাছ কর্তন!

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: বুধবার, ২৬ এপ্রিল, ২০২৩

বাহুবল (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: বাহুবল উপজেলার পুটিজুরী ইউনিয়নে অবস্থিত এশিয়া মহা দেশের বৃহত্তম সরকারী রাবার বাগান রূপাইছড়া রাবার বাগান। সম্প্রতি বাগানের রাবার গাছগুলো রিজেক্ট হয়ে যাওয়ায় অধিকাংশ গাছ নিলামে বিক্রি করে কেটে ফেলা হয়, এবং নতুন ছাড়া রোপন করে বাগান কতৃপক্ষ। এখনও কিছু গাছ ও গাছের লাকরি ট্রাক ভর্তি করে বিক্রি করতে দেখা যাচ্ছে।

রাবার গাছ কাটার পাশা পাশি গত ২০/২২ রমজান বাগানের অফিসের আশ পাশ থেকে ১৩/১৪টি বড় বড় মূল্যবান ইউকিলিপ্টার ও কালো জাম গাছ কেটে বিক্রি করা হয়। যার অনুমানিক মূল্য ৪/৫ লাখ টাকাম মত হবে। বাগানের সরকারী কটেজের পাশে লাগানো প্রাচীন এ গাছগুলো কেটে বিক্রি করার কারনে স্থানীয়দের মধ্যে অসন্তোষ্টি বিরাজ করছে।

এ দিকে রূপাইছড়া রাবার বাগানের পূর্ব সিমান্তে ১৬ নং এরিয়ার ছাত্রাবট এলাকায় বাগানের প্রায় ৫০/৬০ একর জমি লীজ দিয়ে স্থানীয় লোকদের কৃষি কাজ করার জন্য দেয়া হয়েছে। বিঘা প্রতি ৬ হাজার টাকা করে নিয়ে কৃষকদের মুকি চাষ করার জন্য দিয়েছেন বাগান ব্যাবস্থাপক মোঃ মনিরুল ইসলাম, বিষয়টি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক স্থানীয় জনতা জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে রূপাইছড়া রাবার বাগানের ব্যাবস্থাপক মোঃ মনিরুল ইসলাম বলেন, বিক্রি করার জন্য গাছগুলো কাটা হয়নাই। বাগানের গোডাউনের দরজা – জানালা মেরামতের জন্য উর্ধতন কতৃপক্ষের অনুমতিক্রমে ও বাগানে ৫ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করে গাছগুলো কাটা হয়েছে।

টাকার বিনিময় বাগানের জমি কৃষকদের মাজে লীজ দেয়া হয়েছে এমন প্রশ্নে মনিরুল ইসলাম বলেন, টাকার বিনিময় নয়, প্রধান মন্ত্রীর ওয়ার্ডার আছে কৃষকদের কৃষিকাজের জন্য সাময়িক সময়ের জন্য জমি বরাদ্ধ দিতে , সেই সুবাদে বাগানের গাছের নিছে কিছু জমি স্থানীয় কৃষকদের মাজে শাখ সব্জি চাষ করার জন্য দেয়া হয়েছে। বন বিভাগের কোনো রকম অনুমতি ছাড়া একটি সরকারী বাগানের প্রাচীন কিছু বিভিন্ন ফলজ, বনজ ও কাটের গাছ কেটে ফেলায় এলাকাবাসির মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাগানের আশ পাশে বসবাসকারী একাধিক স্থানীয় জনতা জানান, বাগানের বর্তমান ব্যাবস্থাপক মোঃ মনিরুল ইসলাম এখানে যোগদানের পর থেকে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী লোকদের হাত করে বিভিন্ন ভাবে স্থানীয়দের সঙ্গে প্রতিনিয়ত খারাপ ব্যাবহার করে আসছেন, যা অতিথে কখনও ছিলনা। বাগান উন্নয়নের স্বার্থে সুষ্টু তদন্তের মাধ্যমে বাগানের সকল সমস্যা নিরসন করতে বন বিভাগের উর্ধতন কতৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকাবাসি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ