1. nafiz.hridoy285@gmail.com : Hridoy Fx : Hridoy Fx
  2. miahraju135@gmail.com : MD Raju : MD Raju
  3. koranginews24@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক
বাহুবলে রূপাইছড়া রাবার বাগানে জমি নিয়ে জঠিলতা! - করাঙ্গীনিউজ
  • Youtube
  • English Version
  • বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ১০:১৮ পূর্বাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৩ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

বাহুবলে রূপাইছড়া রাবার বাগানে জমি নিয়ে জঠিলতা!

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: রবিবার, ১৪ আগস্ট, ২০২২

এফ আর হারিছ, বাহবল ( হবিগঞ্জ) থেকে: হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার রূপাইছড়া রাবার বাগানে জমি নিয়ে জঠিলতা নিরসনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার ( ভূমি) মোঃ রুহুল আমিন। জানা যায়, উপজেলার পুটিজুরী পাহাড়ি এলাকায় অবস্থিত রুপাইছড়া রাবার বাগান। ১৯৭৭ সালে রিজার্ভ ফরেস্ট থেকে ১৯৬৩ একর জমি বাংলাদেশ বনশিল্প উন্নয়ন কর্পোরেশন লীজ নিয়ে রাবার বাগানের কার্যক্রম শুরু করে। ১৮৩২ একর জমিতে রাবার বাগান, এবং অবশিষ্ট জমিতে অফিস, ফ্যাক্টরী ও সেগুন বাগানের কাজে ব্যাবহৃত হয়। গত ৮ আগস্ট ওই বাগানের সরকারী জমি দখলের পাঁয়তারা চলছে বলে বাগান ব্যাবস্থাপক মোঃ মনিরুল ইসলাম বাহুবল মডেল থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগে অভিযোগকারী উল্লেখ করেন, পুটিজুরী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মুদ্দত আলী বাগান দখলের উদ্দেশ্যে একটি সাইনবোর্ড স্থাপন করেছে।

পরে অভিযোগের তদন্তভার দেওয়া হয় পুটিজুরী তদন্ত কেন্দ্রের এসআই অলিউর রহমানকে। তিনি সরেজমিন তদন্ত করছেন বলে জানা গেছে।

অভিযোগে আরও উল্লেখ করা হয়, গত ৭ আগস্ট দিবাগত রাতে রূপাইছড়া রাবার বাগানে অনধিকার প্রবেশ করে সরকারী জায়গা জবর দখলের উদ্দেশ্যে সোনার বাংলা রাবার এন্ড ফ্রুটস প্রোডাক্ট প্রজেক্ট নামে একটি প্রতিষ্ঠানের সাইনবোর্ড টানিয়ে দেওয়া হয়েছে। ওই জমিতে ১১২০টি উৎপাদনশীল রাবার গাছ রয়েছে। গাছগুলো ১৯৮৩ সালে রোপণ করা।

উক্ত বিষয়টি নিয়ে রূপাইছড়া রাবার বাগান কতৃপক্ষ ও পুটিজুরী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মুদ্দত আলীর মধ্যে রশি টানাটানী শুরু হয়।
দেখা দেয় মারাত্মক জঠিলতা। এই জঠিলতা নিরসনে রবিবার বেলা ২ টার দিকে উপজেলা সহকারী কমিশনার ( ভূমি) মোঃ রুহুল আমিন, উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মীর মোঃ শাহিন, ভূমি অফিসের প্রধান সহকারী মানিক চন্দ্র কর সহ একদল সংবাদ কর্মীর উপস্থিতিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়।

এ সময় উল্লেখিত জমির আনুসাঙ্গিক কাগজপত্র, পর্চা ও জমির ম্যাপ দেখে প্রাথমিকভাবে বুঝা যায়, ববানপুর মৌজার ২৯৯.৩০০ ও ৩০১ দাগে প্রায় সাড়ে ৭ একর জমির মালিক পুটিজুরী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মুদ্দত আলী, যা রাবার বাগান কতৃপক্ষ তাদের বলে দাবী করেছে।

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার ( ভূমি) মোঃ রুহুল আমিন জানান, প্রাথমিকভাবে কাগজপত্র দেখে আমরা বুঝতে সক্ষম হযেছি রাবার বাগানের দাবী করা জমিগুলোর মালিক মোঃ মুদ্দত আলী। তবে এ জমিগুলো কিভাবে তিনি পেয়েছেন বা কার কাছ থেকে ক্রয় করেছেন তা আমরা বিস্তারিত জানার জন্য আগামি মঙ্গল বার সকালে রূপাইছড়া রাবার বাগান ব্যাবস্থাপক ও পুটিজুরী ইউপি চেয়ারম্যানকে আমার অফিসে এনে দোজনের উপস্থিতিতে শুনানী করা হবে। এ সময় তারা প্রত্যেকের প্রমান স্বরুপ বৈধ কাগজপত্র কি আছে তা দেখে বিষয়টি সূরাহার চেষ্টা করবো। এতে ব্যার্থ হলে তাদের মামলা যখন চলমান আছে তাতে কোর্টই সিদ্ধান্ত দিবে।

এ বিষযে রূপাইছড়া রাবার বাগানের ব্যাবস্থাপক মোঃ মনিরুল ইসলাম জানান, উল্লেখিত জমিগুলো রাবার বাগানের জমি। পুটিজুরী ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে যে কাগজপত্র আছে তা সঠিক নয়। আমরা শুরু থেকে অদ্যবধি পর্যন্ত উল্লেখিত জমিতে লাগানো রাবার গাছে ট্রেপিং ( রাবার কষ সংগ্রহ) করে আসছি। আমরা থানা ও জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করেছি, বিষয়টি আমরা আইনীভাবে দেখেই জমিগুলো উদ্ধার করবো।

এ বিষয়ে পুটিজুরী ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মুদ্দত আলী বলেন, ওই জমিগুলো আমার কেনা। আমার বৈধ কাগজপত্রও রয়েছে। তাছাড়া রাবার বাগানের অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে ৭ আগস্ট রাতের বেলা আমি সাইনবোর্ড লাগিয়েছি, এটা ডাহা মিথ্যা কথা। আমি সাইনবোর্ডটি লাগিয়েছি ১ আগষ্ট দিনের বেলা অর্ধশত মানুষের সামনে। তাছাড়া আমার সাইনবোর্ড লাগানোটা নতুন কিছু নয়। ২০০৫ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত এখানে সাইনবোর্ড ছিল, যা স্থানীয় লোকজনের জানা আছে, কিন্ত ২০১৫ সালে সেখানে চলাচলরত একটি ট্রাক্টর সাইনবোর্ডটি ভেঙ্গে ফেলায় পরে লাগাব লাগাব করে আর লাগানো হয়নাই। তাছাড়া গত শনিবার দিবাগত রাতে কে বা কারা আমার বাগানে লাগানো সাইনবোর্ডটি চুরি করে কেটে নিয়ে যায় । এ বিষয়েও আমি আইনী ব্যাবস্থা গ্রহণ গ্রহনের প্রস্তুতি নিয়েছি। আমার জানামতে আমি কারো জমি দখল করিনি বা করার প্রশ্নই আসেনা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ
x