1. nafiz.hridoy285@gmail.com : Hridoy Fx : Hridoy Fx
  2. miahraju135@gmail.com : MD Raju : MD Raju
  3. koranginews24@gmail.com : সম্পাদক : সম্পাদক
আখলাক হুসেইন খান খেলু : মফস্বলের এক কিংবদন্তি সাংবাদিক - করাঙ্গীনিউজ
  • Youtube
  • English Version
  • বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ০৪:৫৩ অপরাহ্ন

করাঙ্গী নিউজ
স্বাগতম করাঙ্গী নিউজ নিউজপোর্টালে। ১৩ বছর ধরে সফলতার সাথে নিরপেক্ষ সংবাদ পরিবেশন করে আসছে করাঙ্গী নিউজ। দেশ বিদেশের সব খবর পেতে সাথে থাকুন আমাদের। বিজ্ঞাপন দেয়ার জন‌্য যোগাযোগ করুন ০১৮৫৫৫০৭২৩৪ নাম্বারে।

আখলাক হুসেইন খান খেলু : মফস্বলের এক কিংবদন্তি সাংবাদিক

  • সংবাদ প্রকাশের সময়: বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১

শিব্বির আহমদ আরজু:
আখলাক হুসেইন খান খেলু ভাইয়ের আজ ৫ম মৃর্ত্যুবার্ষিকী। ২০১৬ সালের আজকের এই দিনে ইহ জগৎ ছেড়ে চলে যান পরপারে। জীবদ্দশায় রেখে গেছেন অনেক স্মৃতি। সেই স্মৃতি রোমন্থন করার মতো আমাদের মানসিকতা যে খুব সংকীর্ণ। কারণ, এ জগতে মৃত ব্যক্তিকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করার মতো আমাদের সময় কোথায় ? যাক সে আরেক কথা।

স্বচ্ছ ও ক্লিন ইমেজের ব্যক্তিত্ব ছিলেন খেলু ভাই। সবসময় খুব পরিপাটি থাকতেন। শুরুতে বাংলা বাজার পত্রিকার বানিয়াচং উপজেলা প্রতিনিধি ছিলেন। পরবর্তীতে মতিউর রহমান চৌধুরী সম্পদিত দৈনিক মানবজমিন পত্রিকায় যোগদান করে হাওরাঞ্চল প্রতিনিধি ছিলেন আমৃত্যু।

লেখা খুব শাণিত ছিল। ছোট ছোট বাক্যে অনায়াসে চমৎকার সংবাদ লিখতেন। এ ছাড়াও প্রবন্ধ-নিবন্ধতে সিদ্ধহস্ত ছিলেন। জীবনের শেষ দিকে দৈনিক সমকাল, যুগান্তর ও কালেরকণ্ঠসহ বিভিন্ন নামি-দামি পত্রিকায় মফস্বলে থেকেও নিয়মিত কলাম লিখেছেন।

কলামের বিষয়বস্তু ছিল হাওরাঞ্চল। এটা হচ্ছে খেলু ভাইয়ের দীর্ঘ গবেষণার ফসল। বানিয়াচংয়ে সাংবাদিক বললেই যাদের নাম শ্রদ্ধার সাথে চলে আসতো এর মধ্যে তিনি ছিলেন অন্যতম। খুব সাদাসিদে ভালো মানুষ ছিলেন। সততার মধ্যে থেকে মহান পেশা সাংবাদিকতা করেছেন। কারও সম্মান নিয়ে খেলেননি তিনি। আবার কারও ভয়ভীতিতে সত্য সংবাদকে গোপনও করেননি। যা সত্য তাই নিপুণভাবে কলমের আঁচরে তুলে ধরেছেন। খেলু ভাইয়ের সম্পর্ক ছিল সকল শ্রেণিপেশার মানুষের সাথে। অগ্রজরা স্নেহ করতেন এবং অনুজরা করতেন সম্মান।

খেলু ভাই সাংবাদিকতার পাশাপাশি একজন গীতিকারও ছিলেন। বানিয়াচংয়ের ইতিহাস-ঐতিহ্য সম্পর্কে ভালো ধারণা ছিল তাঁর। তিনি সংবাদ নিয়ে চর্চা করতেন। করতেন অনেক গবেষণা। সেই গবেষণার ফসল-ই হচ্ছে হাওর নিয়ে একের পর এক ক্ষুরধার কলাম। এক কথায় সাংবাদিকতার যতসব গুণ থাকা আবশ্যক তা বিদ্যমান ছিল খেলু ভাইয়ের মধ্যে।
সাংবাদিকতা করতে গিয়ে সঠিক সময়ে সংসারটা পর্যন্ত করতে পারেননি তিনি। মৃত্তিকার সুধা, দেশপ্রেম এবং মানবিক গুণে গুনান্বিত ছিলেন। সংবাদ নিয়ে অনুসন্ধান করতেন। সংবাদের ভিতরের সংবাদ তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন সবসময়। আজ সর্বত্র সাংবাদিকের অভাব নেই। কিন্তু অনুসন্ধানী সংবাদ এবং সংবাদের ভিতরের সংবাদ লেখার মতো সাংবাদিকের আকাল চলছে!

খেলু ভাই ছিলেন জাত সাংবাদিক। মফস্বলের রত্ম ছিলেন তিনি। বানিয়াচং প্রেসক্লাবের সভাপতি ছিলেন। তাঁর হাতে ধরে অনেক সাংবাদিক হয়েছেন। দিয়েছেন পত্রিকার প্রতিনিধি বানিয়ে। সহকর্মীদের ভালোবাসতেন। কাছে টেনে আনতেন। এ ছিল খেলু ভাইয়ের নির্মোহ বক্তিত্বের পরিচায়ক। আমি অধমও ছিলাম সেই প্রেসক্লাবের একজন সদস্য। সংখ্যাধিক্যে সাংবাদিকতায় বিশ্বাসী ছিলেন না তিনি। যাদের টেনে এনেছেন তাদেরকে সাংবাদিকতার দীক্ষা দিয়েছেন। দিনের পর দিন, বছরের পর বছর শ্রম দিয়েছেন।আজকাল সেটা প্রায় অনুপস্থিত।

আখলাক হুসেইন খান খেলু ভাই আজ নেই। ৫টি বছর হয়েছে তিনি গত হয়েছেন। তবে সে জায়গাটি আক্ষরিক অর্থে পূরণ হলেও বাস্তবতায় হয়নি। কবে নাগাদ হবে তা বলতে পারছি না। লেখার যবনিকায় বানিয়াচং প্রেসক্লাবের প্রয়াত সভাপতি আখলাক হুসেইন খান খেলু ভাইকে সশ্রদ্ধচিত্তে স্মরণ করছি এবং আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।

ক্যাপশন-
লেখক : সাধারণ সম্পাদক, বানিয়াচং মডেল প্রেসক্লাব।
তাং- ২৯/১২/২০২১

সংবাদটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো সংবাদ