বাহুবলের সাত ইউনিয়নে আগাম নির্বাচনী হাওয়া বইছে

এফ আর হারিছ, বাহুবল ( হবিগঞ্জ): আগামী বছরের মার্চ মাসে ইউনিয়ন পরিষদগুলোতে নির্বাচন হতে পারে এমন ঘোষণায় আগাম নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করেছে হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার ৭ টি ইউনিয়নে। উপজেলার ৭ ইউনিয়নেই আগামী নির্বাচনে ভোটে লড়বার প্রস্তুতির অংশ হিসেবে মাঠে সরব হচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। বিভিন্ন হাটে-বাজারে, মোড়ে-মোড়ে চা স্টলে ক্রমেই জমে উঠছে নির্বাচনী আলাপ আলোচনা।

নির্বাচনের পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে নানান ধরণের সেবামূলক কাজ নিয়ে এলাকা ঘুরে বেড়াচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। সব মিলে মাঠ জুড়ে আগাম ইউপি নির্বাচনী হাওয়া বইতে শুরু করেছে বাহুবলে।

অন্যদিকে অনেক প্রবাসি প্রার্থীরাও প্রবাস থেকে প্রার্থীতা ঘোষনা করে স্ব স্ব এলাকার সাধারণ ভোটারদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন। নভেম্বর- ডিসেম্বরে প্রবাসি প্রার্থীরা দেশে ফিরে এসে তাদের নির্বাচনী কার্যক্রম পুরোদমে চালাবেন বলে জানা গেছে।

বিগত ইউপি নির্বাচনে স্থানীয় সরকারের গুরুত্বপূর্ণ এ উপজেলার ৭ ইউনিয়নের মধ্যে স্নানঘাট, পুটিজুরী, বাহুবল সদর, লামাতাসি ও মিরপুর ৬ টিতে নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এবং বাকি ১টি ৩ নং সাতকাপন ইউনিয়নে জাতীয় পাটির প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। গত নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বিএনপির কোন প্রার্থী কিংবা অন্য কোন দল থেকে কোন প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে পারেন নি।

আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে মাঠে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের দলীয় নেতাকর্মীরাই বেশি সরব রয়েছেন। অনেকেই নিজেকে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ঘোষাণা দিয়ে নানা উছিলায় জনগণের কাছে যাচ্ছেন। অনেকেই ব্যক্তি উদ্যোগে গ্রামীন রাস্তা সংস্কারসহ ছোট-খাটো নানা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড চালাচ্ছেন। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে এ পর্যন্ত যাদেরকে মাঠে – ময়দানে সরব দেখা যাচ্ছে, তাদের মধ্যে –

১ নং স্নানঘাট ইউনিয়ন:  আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী, উপজেলা ছাত্রলীগ’র সাবেক সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান ফেরদৌস আলম, মৎস্যজীবী লীগ’র জেলা সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম, মৎস্যজীবী দল ( বিএনপি) এর জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট মোদ্দত আহমেদ, ইউনিয়ন বিএনপি নেতা ডাঃ হারুন অর রশিদ, ইসলামী ফ্রন্ট নেতা মাওঃ সফিক আহমেদ।

২নং পুটিজুরী-‘ইউনিয়ন: আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান শামছুদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ও রূপাইছড়া রাবার বাগান শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ আব্দুল্লাহ মিয়া, তাতী লীগ’র জেলা সভাপতি ও পুটিজুরী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোদ্দত আলী, ইংল্যান্ড আওয়ামীলীগ নেতা ও রূপাইছড়া রাবার বাগান শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের নির্বাচিত সাবেক সভাপতি খন্দকার হিরা মিয়া, জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র ইউনিয়ন সভাপতি খন্দকার আমজাদ হুসেন হারিছ, ছাত্রদলের জেলা সদস্য খন্দকার খোরশেদ আলম সুজন।

৩ নং সাতকাপন- ইউনিয়ন: আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুর নূর মানিক, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা আয়াত আলী, সাবেক চেয়ারম্যান শাহ আহমেদ আওলাদ, জাতীয়পাটি নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান শাহ আব্দাল মিয়া তালুকদার, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র মনোনয়ন প্রত্যাশি, বিএনপি উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ রাজু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইমান উদ্দিন সরকার, ২০ দলীও জোটের শরিক দল খেলাফত মজলিস নেতা, সিনিওর সাংবাদিক, গত নির্বাচনে খেলাফত মজলিস এর পরাজীত প্রার্থী সাঈদ আহমেদ

৪নং সদর ইউনিয়ন: আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান আজমল হোসেন চৌধুরী, উপজেলা যুবলীগ’র সাবেক সভাপতি ওলিউর রহমান অলি, উপজেলা বিএনপি নেতা শামায়ূন কবির, স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজল তালুকদার,

৫ নং লামাতাশি ইউনিয়ন: আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশি উপজেলা জাতীয় শ্রমিকলীগ’র সভাপতি ও বর্তমান চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান চৌধুরী টেনু,
বৃন্দাবন সরকারী কলেজ ছাত্রলীগ’র তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদকর, উপজেলা যুবলীগ’র সাবেক প্রচার সম্পাদক, বাহুবল মডেল প্রেস ক্লাবের সহ সভাপতি সাইফুর রহমান জুয়েল, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সফিক মিয়া, বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী
উপজেলা ছাত্রদল’র সাবেক আহবায়ক আব্দুল আহাদ কাজল, বিএনপি নেতা- মোঃ ফারুক মিয়া,
উপজেলা ছাত্রদল’র সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মোঃ শাহিন মিয়া,
উপজেলা জাতীয় পার্টি সাবেক সাধারণ সম্পাদক উস্তার মিয়া তালুকদার,

৬ নং মিরপুর ইউনিয়ন:  আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী, উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান সাইফুদ্দিন লিয়াকত, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সেক্রেটারি মোঃ আসকির মিয়া, সাবেক মেম্বার মকসুদ আলী, বিএনপি নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব সামছুল হক মাস্টার (স্বতন্ত্র), বর্তমান মেম্বার শামীম আহমেদ ( স্বতন্ত্র), জামায়াত ও জেলা ছাত্র শিবিরের সাবেক সভাপতি মীর জমিলুন্নবী ফয়সল, সাবেক চেয়ারম্যান ও এনপিপি উপজেলা সভাপতি ডাঃ রমিজ আলী,

৭ নং ভাদেশ্বর ইউনিয়নঃ
বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান বসির, সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা মুতাচ্ছির মিয়া, জেলা পরিষদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা আলাউর রহমান সাহেদ, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক হুমায়ূন রশিদ জাবেদ, সাবেক ইউপি সদস্য ও বিএনপি নেতা আব্দুল হান্নান চৌধুরী উপজেলা জামায়াতের সভাপতি কাজী আব্দুর রউপ বাহার।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve + seventeen =