এমপি আবু জাহিরের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিনিধি, হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের আইন পাস হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ও শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি’র প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন হবিগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য এবং জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মোঃ আবু জাহির।

সম্প্রতি হবিগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে সংসদ সদস্য তাঁর প্যাডে প্রধানমন্ত্রী বরাবর প্রেরিত পত্রে এই কৃতজ্ঞতা জানান। একইভাবে তিনি জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এবং শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি’র প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীকে দেয়া চিঠিতে এমপি আবু জাহির উল্লেখ করেন, দীর্ঘদিন পর গত ২০১৪ সালের ২৯ নভেম্বর হবিগঞ্জের নিউফিল্ডে আপনাকে নিয়ে আমরা জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এক বিশাল জনসভা আয়োজন করি। ওইদিন হবিগঞ্জের ইতিহাসে স্মরণকালের সর্ববৃহৎ লাখো জনতার সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত জনসভায় আমি হবিগঞ্জবাসীর পক্ষ থেকে অসংখ্য বৃহৎ উন্নয়ন কর্মকান্ড সম্পন্ন করায় আপনার প্রতি কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জানাই। পাশাপাশি জেলাবাসীর পক্ষে আরো বৃহৎ চারটি দাবি পূরণের জন্য অনুরোধ করি।

এগুলো হল- হবিগঞ্জে মেডিক্যাল কলেজ, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, শায়েস্তাগঞ্জকে উপজেলায় রূপান্তর ও চুনারুঘাটে বাল্লা স্থলবন্দর নির্মাণ।সেদিন উক্ত জনসভায় আপনি হবিগঞ্জবাসীর উপরোক্ত চারটি প্রাণের দাবি বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দেন। যার ফলশ্রুতিতে হবিগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষ আপনার প্রতি খুবই খুশী হয়। বিগত ২০১৪ সালের ১৭ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আপনার পক্ষে আব্দুল মালেক, পিএস-১ চারটি মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবরে আপনার দেওয়া প্রতিশ্রুতি পূরণের জন্য পত্র প্রেরণ করেন এবং আমাকে প্রত্যেকটি পত্রের অনুলিপি প্রেরণ করেন। এর পর থেকেই আমি প্রত্যেকটি মন্ত্রণালয়ে অসংখ্যবার যোগাযোগ করি।

আজ আমরা আনন্দের সাথে জানাচ্ছি- আপনার দেওয়া চারটি প্রতিশ্রুতির মধ্যে পর্যায়ক্রমে শেখ হাসিনা মেডিক্যাল কলেজ, হবিগঞ্জ ও শায়েস্তাগঞ্জকে উপজেলায় রূপান্তর করেছেন এবং চুনারুঘাট উপজেলার বাল্লা স্থলবন্দরের কাজও চলমান আছে।

গত ১০ সেপ্টেম্বর-২০২০ জাতীয় সংসদে
আপনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের সপ্তম কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় আইনটি পাস হয়। এই খবর জানাজানি হলে হবিগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে আনন্দের বন্যা বইতে শুরু করে। আমরা প্রত্যেকটি মসজিদে মসজিদে আপনার জন্য দোয়া ও মন্দিরে মন্দিরে
প্রার্থনা করাই।

হবিগঞ্জ জেলাবাসীর পক্ষ থেকে আমি আপনার প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করি। ইতোমধ্যে হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সকল নেতৃবৃন্দকে নিয়ে আমরা সভা করে সিদ্ধান্ত নিয়েছি আগামী দিনে আপনার সময় ও সুযোগে আবারও আপনাকে লাখো জনতার উপস্থিতিতে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করব। মহান আল্লাহ রাব্বুল আল আমিনের নিকট আপনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।

এছাড়া পৃথক আরও দু’টি পত্রে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় আইন পাসের ক্ষেত্রে জাতীয় সংসদের স্পীকার এবং শিক্ষা মন্ত্রীর নানা অবদানের কথা তুলে ধরে
তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন এমপি আবু জাহির।

Social Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four + 3 =