#  হবিগঞ্জে নতুন আরো ২৮ জনের করোনা শনাক্ত #  একজন অসাধারণ মাহমুদ হাসান স্যার! #  নবীগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত কিশোরের মৃত্যু #  বানিয়াচংয়ে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মহিলাদের সেলাই মেশিন বিতরণ #  চুনারুঘাটে ভাইয়ের দা’র কুপে ভাই খুন #  হবিগঞ্জে দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে জরিমানা #  দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু ৪৬ #  চুনারুঘাটে ৫০০ পরিবারে চাউল বিতরণ #  মৌলভীবাজারে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানের লাশ উদ্ধার #  হবিগঞ্জে বেসরকারী কলেজ শিক্ষকদের মানববন্ধন #  আজমিরীগঞ্জে নতুন ইউএনও মতিউর রহমান #  বাঁচতে চায় নদী! #  মোতাচ্ছির সিলেট বিভাগে শ্রেষ্ট উপজেলা চেয়ারম্যান #  মিশিগানে হবিগঞ্জের প্রবীণ মুরুব্বী আব্দুর রশিদের ইন্তেকাল #  নবীগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান মুকুল সাময়িক বরখাস্ত

বাহুবলে হাঁস ছড়ানোকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত শতাধিক

আনোয়ার হোসেন সজল, ঘটনাস্থল থেকে: হবিগঞ্জের বাহুবলে বিলে হাঁস ছড়ানোকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে পুলিশসহ উভয়পক্ষের শতাধিক লোকজন আহত হয়েছেন।

বুধবার (২৭ মে) বেলা ২ থেকে ৪টা পর্যন্ত টানা দুই ঘন্টাব্যাপী স্থায়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে উপজেলার অলুয়া ও ভেড়াখাল চানপুর গ্রামবাসীর মধ্যে।

জানা যায়, উপজেলার অলুয়া গ্রামের মর্তুজ আলীর ধানের জমিতে হাঁসের দল গিয়ে জমি নষ্ট করে। হাঁসের মালিক ভেড়াখাল গ্রামের আমান উল্লা হাঁস নিতে আসলে উভয় পক্ষের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়, এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের লোকজন দেশিয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। দুই ঘন্টা ব্যাপী স্থায়ী সংঘর্ষে পুলিশসহ শতাধিক লোকজন আহত হয়।

বাহুবল সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে থানার ওসি, ওসি (তদন্ত) দাঙ্গা পুলিশ নিয়ে দুইঘন্টাব্যাপী স্থায়ী সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসেন।

বিকেল সাড়ে ৫টা এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাহুবল সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী বলেন, এখনো ঘটনাস্থলে আছি, সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রন করতে কি পরিমান গুলি নিক্ষেপ করা হয়েছে তার হিসাব মিলাতে পারিনি। তবে তিনি বলেন, সংঘর্ষ এড়াতে ২০/২২ জনের মত দাঙ্গাবাজদের আটক করে থানায় পাটিয়েছেন।

সাংবাদিক জুবায়ের আহমদ বলেন, আমার দেখা থানার সেকেন্ড অফিসার শাহ আলি, এসআই শহিদুল, এ এসআই আবু সাঈদ, মাজেদ কনস্টেবল রফিক আহত হয়েছেন।

তিনি বলেন, হয়তে আরো পুলিশ আহত হয়েছেন। তবে আহতরা পুলিশের গ্রেফতার এড়াতে বাহুবল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে না গিয়ে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলেও তিনি জানান।

এদিকে সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা (বিপিএম,পিপিএম বার) ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছেন।