Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  হবিগঞ্জে সহস্রাধিক লোকের হাতে খাবার তুলে দিলেন আবু জাহির #  নবীগঞ্জে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মাক্স বিতরন #  আজমিরীগঞ্জে প্রশাসন ও সেনাবাহিনীর সমন্বয়ে অভিযান #  হবিগঞ্জে পানিতে ডুবে স্কুল ছাত্রীর মৃত্যু #  বানিয়াচংয়ে প্রশাসনের ত্রাণ বিতরণ #  মাধবপুরে সায়হাম গ্রুপের সৌজন্যে মার্কস বিতরণ #  করোনা ভাইরাসের মাঝেও ভিক্ষা করছেন হবিগঞ্জের মীর চান #  মাধবপুরে করোনা ভাইরাস রোধে সেনাবাহিনীর প্রচারাভিযান #  ২৪ ঘণ্টায় নতুন কোনও করোনা রোগী শনাক্ত হয়নি #  শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু হলো সংসদ টেলিভিশনে #  মাধবপুরে পুলিশের বাড়িতে ডাকাতি #  নবীগঞ্জে বাড়ি বাড়ি খাদ্য সামগ্রী বিতরণ #  আজমিরীগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে টেটাবিদ্ধসহ আহত ১০ #  শায়েস্তাগঞ্জে ইয়াবাসহ আটক ৩ #  চুনারুঘাটে করোনার রোগী বহনে প্রস্তুত ব্যারিস্টার সুমনের গাড়ি

হবিগঞ্জ কারাগারে ফোনে কথা বলতে পারবে বন্দিরা

নিজস্ব প্রতিনিধি, হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জ জেলা কারাগারে আটক বন্দিরা নিকটাত্মীয়দের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলতে পারবেন।

দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমন সংক্রান্ত উদ্ভূত পরিস্থিতিতে কারাবন্দিদের জন্য কারাগারসমূহে জরুরী ফোন বুথ স্থাপন ও ফোনে কথা বলার সুযোগ করে দেয়া হয়েছে। এর ফলে কারা বন্দিরা স্বজনদের সাথে কথা বলার সুযোগ পেলেন।

বৃহস্পতিবার হবিগঞ্জ জেলা কারাগারে জেল সুপার (ভারপ্রাপ্ত) সাঈদ মোহাম্মদ ইব্রাহীম এবং জেলার জয়নাল আবেদীন ভূঞা এর উপস্থিতিতে কারা বন্দিদের কথা বলার বুথ উদ্ধোধন করা হয়।

হবিগঞ্জ কারাগারের বন্দিরা প্রতি সপ্তাহে একবার করে পরিবারের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন। এজন্য তাদের প্রতি মিনিটে ৫ টাকা করে দিতে হবে। কারা কর্তৃপক্ষের বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে উপস্থিত হতে হবে।

একেকজন বন্দি সর্বোচ্চ ৫ মিনিট করে কথা বলার সুযোগ পাবেন। বন্দিদের মন ভালো রাখতে এবং কারাগারে স্বজনদের আগমন কমাতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষ। তবে ফোনে কথা বলার সুযোগ পাবে না কারাবন্দি জঙ্গি ও শীর্ষ সন্ত্রাসীরা।

ফোনের বুথগুলোতে থাকবে বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা। যাতে করে কোনও বন্দিরা ফোনে কথা বলার সময় অপরাধ কর্মকাণ্ড না ঘটাতে পারে বা অপরাধ সংশ্লিষ্ট কোনও তথ্য আদান প্রদান করতে না পারে।

বুথ থেকে শুধু কথার বলার সুযোগ থাকবে। বাইরে থেকে কোনও ফোন কারা নম্বরে গেলেও বন্দিদের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পাবে না। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টায় প্রথম ধাপ এবং ২টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত দ্বিতীয় ধাপ চালু করা হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে কথা বলতে পারবে কারাবন্দিরা। নির্ধারিত সময় পার হয়ে গেলে কেউ আর কোনও সুযোগ পাবে না।

ফোনে কথা বলার টাকা সরাসরি গ্রহণ না করে যেসব বন্দির টাকা পিসিতে (প্রিজন সেল) থাকবে, তাদের টাকা পিসি থেকে কেটে নেওয়া হবে। একজন বন্দি সপ্তাহে একবার কথা বলার সুযোগ পাবে।

এদিকে, নারী বন্দিদের জন্য থাকবে আলাদা ফোন বুথ। কারা অভ্যন্তরে স্থাপন করা ফোন বুথের নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকবেন কারারক্ষীরা। তাদের ফোন নম্বর দেওয়ার পর তারা সেই নম্বরে সংযোগ করে বন্দিদের কথা বলার সুযোগ দেবেন। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে বন্দিরা উপস্থিত থেকে সিরিয়াল অনুযায়ী কথা বলার সুযোগ পাবে।