Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
 #  হবিগঞ্জে যত্রতত্র ঘোরাফেরা না করার আহব্বান জেলা প্রশাসকের #  বাহুবলে বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দিচ্ছেন মেম্বার শামীম #  সিলেটে করোনা আক্রান্ত প্রথম রোগী একজন চিকিৎসক #  সিলেটে স্বামীকে ভিডিওকলে রেখে স্ত্রীর আত্মহত্যা #  শ্রীলংকার চেয়েও এগিয়ে বাংলাদেশ! #  ওসমানীনগরে আল-আমানাহ ফাউন্ডেশন ইউকের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ #  মাধবপুরে ২ গাঁজা পাচারকারী গ্রেফতার #  হবিগঞ্জে করোনা সচেতনতামূলক কর্মসূচি অব্যাহত রেখেছেন এমপি আবু জাহির #  মাধবপুরের লোকজনকে ঘরে থাকার জন্য সেনাবাহিনীর সচেতনতা অভিযান #  চুনারুঘাটে মাদক ব্যবসায়ি ফুল মিয়া আটক #  দেশে করোনায় আরেক জনের মৃত্যু #  বড়লেখার সাবেক এমপি সিরাজুল আর নেই #  নবীগঞ্জে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত #  করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়াল ৬৪ হাজার #  বাহুবলের ২২টি দোকানের ভাড়া মওকুফ করলেন মার্কেটের মালিক

নবীগঞ্জে জেআইসি গার্মেন্টসের শ্রমিকদের মহাসড়কে অবরোধ

মোঃ আলমগীর মিয়া, নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ): হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দিতে জেআইসি স্যুট লিমিটেড গার্মেন্টসে বেতন না পাওয়ায় আবারো মহাসড়ক অবরোধ করলো শ্রমিকরা।

মঙ্গলবার বিকেলে  ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক  অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে ক্ষুব্ধ নারী ও পুরুষ শ্রমিকরা। এ সময় শ্রমিকরা প্রায় এক ঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। এতে মহাসড়কের উভয় পাশে শতশত যানবাহন আটকা পড়ে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

পরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও এলাকার গণ্যামন্য ব্যক্তিদের হস্তক্ষেপে শ্রমিকরা সাথে সমঝোতার মাধ্যমে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

জানা যায়, উপজেলায় আউশকান্দি শহীদ কিবরিয়া চত্বর এলাকায় অবস্থিত জেআইসি স্যুট লিমিটেড গার্মেন্টস এর দুটি পোশাক কারখানা রয়েছে। উক্ত কারখানাগুলোতে প্রায় ২ হাজার নারীসহ প্রায় ৩ হাজার শ্রমিক কাজ করে। দীর্ঘদিন ধরে নীতিমালা লঙ্ঘন করে তাদেরকে বেতন বৈষম্যের মাধ্যমে বায়ারদের কাছে গার্মেন্টস কর্তৃক বেতনের চরম বৈষম্য তৈরি হয়।

এছাড়া অনেক শ্রমিককে ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা করে মাসিক বেতন প্রদান করা হয় এবং তাদেরকে প্রতিদিন ৪-৫ ঘন্টা অতিরিক্ত কাজ করিয়ে কোনো অতিরিক্ত বেতন প্রদান করা হয় না। বায়ার আসলে তাদের বলা হয় শ্রমিকদের বেতন ৮-১০ হাজার টাকা দেয়া হয়। শিখানো কথা বায়ারদের কাছে না বললে শ্রমিকদের নির্যাতন করা হয় এবং চাকরিচ্যুত করা হয়।
গত দুই মাস যাবত শ্রমিকদের কোনো বেতন ভাতা প্রদান করা না হলে গার্মেন্টস এর শ্রমিকরা এক ঘন্টা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।

খবর পেয়ে নবীগঞ্জ থানা পুলিশ, শেরপুর হাইওয়ে পুলিশ, গোপলা বাজার তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা জন্য গার্মেন্টস মালিক পক্ষের সাথে আলোচনায় বসেন। এসময়  দ্রুত শ্রমিকদের বকেয়া বেতন ভাতা প্রদান করা হবে মর্মে আশ্বাস প্রদান করলে দেশের বর্তমার পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে অবরোধ তুলে নেয়।

নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আজিজুর রহমান ও শেরপুর হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ  এরশাদুল হক ভূইয়া জানান  শ্রমিক ও গার্মেন্টস মালিক পক্ষ সমচতায় পৌছে যাওয়ায় বিষয়টি নিরসনে হয়ে গেছে।